kalerkantho

বুধবার। ৬ মাঘ ১৪২৭। ২০ জানুয়ারি ২০২১। ৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বেতন বন্ধ, স্বামী মৃত্যুশয্যায় : হ্যান্ডবল প্রশিক্ষক কবিতার পরিবারে চরম দুর্দিন

মাদারীপুর প্রতিনিধি   

২৮ নভেম্বর, ২০২০ ১৭:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বেতন বন্ধ, স্বামী মৃত্যুশয্যায় : হ্যান্ডবল প্রশিক্ষক কবিতার পরিবারে চরম দুর্দিন

প্রায় ২৩ বছর ধরে দেশের জন্য খেলাধুলা করেন মাদারীপুরের নারী হ্যান্ডবল কোচ ও বিজিএমসির নিয়মিত খেলোয়াড় কবিতা রাণী মালো। করোনাকালে চাকুরী হারিয়ে মৃত্যুশয্যায় স্বামীকে নিয়ে চোখের জলে গাঁ ভাসাচ্ছেন তিনি। তার দুর্দিনে পাশে নেই কোনো সংগঠন। অভাব-অনটনের সংসারে স্বামীর চিকিৎসার ব্যয় বহন করা তার জন্য কষ্টসাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্বামীর উন্নত চিকিৎসার জন্য সহায়তা, আর নিজের একটি কর্মসংস্থানের দাবি জানিয়েছেন এই নারী হ্যান্ডবল কোচ।

১৯৯৭ সালে মাঠে খেলাধুলা শুরু করেন মাদারীপুর শহরের কাঠপট্টি এলাকার কবিতা রাণী মালো। পরে ২০০২ সালে নারী হ্যান্ডবল খেলোয়াড় হিসেবে বিজিএমসিতে খেলার সুযোগ পান। সেখান থেকে চলতি বছরেও খেলাধুলা করে প্রতিমাসে সাড়ে ১৬ হাজার টাকা সম্মানী পেতেন কবিতা। কিন্তু করোনা দুর্যোগে গত তিনমাস ধরে বন্ধ গেছে খেলাধুলা। একই সাথে বন্ধ তার সম্মানীভাতাও। এতে একদিকে সংসার চালানো যেমন দায়, অন্যদিকে টিবি ও কিডনি রোগে আক্রান্ত মৃত্যুশয্যা স্বামীর চিকিৎসার ব্যয় বহন করা তার জন্য কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। 

বিভিন্ন সময়ে জেলা ও দেশের জন্য খেলে পেয়েছেন নানা সম্মাননা। প্রাপ্তি অর্জনের নানা ক্রেস্ট শো-কেসে সাজানো আছে। সে মানুষটি পরিবার-পরিজন রেখে খেলাধুলা করে এতোকিছু করেছেন, তার এই দুর্দিনে পাশে নেই কোন সংগঠন। বর্তমানে স্বামীকে নিয়ে মাারীপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে আছেন তিনি। কিন্তু অর্থাভাবে স্বামীর উন্নত চিকিৎসা করাতে পারছেন না। সবার কাছে আর্তি জানিয়েছেন সাহায্যের।

মাদারীপুর হ্যান্ডবল ট্রেনিং সেন্টারের সহকারী প্রশিক্ষক (কোচ) কবিতা রাণী মালো জানান, দেশের জন্য খেলাধুলা করে ২০০২ সালে বিজিএমসি থেকে হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতায় প্রথম হন। এছাড়া বেক্সিমকোতে পর পর ৪ বার চ্যাম্পিয়নশিপ লাভ করেন কবিতা। তার স্বামীর উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা। পরিবারে ৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে ও ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক মেয়ে রয়েছে। একদিকে সংসার খরচ ও অন্যদিকে স্বামীর চিকিৎসার ব্যয় বহন করা দুটোই এখন কষ্টসাধ্য। এক্ষেত্রে সমাজের সবস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার ও হ্যান্ডবল ট্রেনিং সেন্টারের সভাপতি মোহাম্মদ মাহবুব হাসান জানান, নারী এই হ্যান্ডবল প্রশিক্ষকের মনোবল ধরে রাখতে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে। এক্ষেত্রে হ্যান্ডবল ট্রেনিং সেন্টার ও জেলা পুলিশ ইউনিট থেকে পর্যাপ্ত সহায়তা দেয়া হবে। মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ড. রহিমা খাতুন বলেন, কবিতা রাণী মালোর স্বামীর চিকিৎসার জন্য প্রাথমিক ক্ষুদ্র পরিসরে সহায়তা দেয়া হয়েছে। তিনি চাইলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সহায়তা করা হবে।

কবিতার রানী মালোকে সহযোগিতার জন্য: ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার: ২১১০৫০১০২০১৮৯, সোনালী ব্যাংক, মাদারীপুর শাখা। মোবাইল ব্যাংকিং নাম্বার: ০১৯১৬-৬৫২৯৬৯-০, ডাচ বাংলা ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা