kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ মাঘ ১৪২৭। ২৬ জানুয়ারি ২০২১। ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ভারতকে প্রথম ম্যাচেই উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ নভেম্বর, ২০২০ ১৮:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতকে প্রথম ম্যাচেই উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া

টর্নেডো সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন ম্যাচসেরা স্টিভেন স্মিথ। ছবি : এএফপি

জয় দিয়ে দেশের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আজ তারা জিতেছে ৬৬ রানের বড় ব্যবধানে। অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ আর সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের জোড়া সেঞ্চুরিতে অজিদের স্কোর ছিল আকাশছোঁয়া-৩৭৪ রান। এই রান তাড়া করতে নেমে ভারত ৩০৮ রান পর্যন্ত তুলতে পেরেছে। তবে তাদের কোনো তিন অংকের ইনিংস নেই। সর্বোচ্চ ৯০ রান হার্দিক পাণ্ডিয়ার। টর্নেডো ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা হয়েছেন স্টিভেন স্মিথ।

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নার আর অ্যারন ফিঞ্চ উপহার দেন ১৫৬ রানে দারুণ ওপেনিং জুটি। ভারতীয় পেস আক্রমণ তাদের কাছে পাত্তাই পায়নি। শেষ পর্যন্ত ৭৬ বলে ৬৯ করা ওয়ার্নারকে ফেরান পেসার মোহাম্মদ শামি। এরপর জমে যায় ফিঞ্চ-স্মিথ জুটি। ১১০ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি গড়ে ফিঞ্চ যখন বুমরাহর শিকার হলেন, তখন তার নামের পাশে ১২৪ বলে ১১৪ রানের ঝলমলে ইনিংস। তিনি ক্যারিয়ারের ১৭ নম্বর সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ১১৭ বলে। এরপর ম্যাচটি হয়ে ওঠে স্মিথময়।

 নিজেকে ফিরে পাওয়া বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান ভারতীয় বোলারদের শাসন করতে থাকেন। শুরু থেকেই আক্রমণাত্বক স্মিথ মাত্র ৩৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন। এরপর যেন আরও ভয়ংকর হয়ে ওঠেন স্মিথ। ক্যারিয়ারের ১০ নম্বর সেঞ্চুরি তুলে নেন মাত্র ৬২ বলে। হাঁকান ১১টি বাউন্ডারি এবং ৪টি বিশাল ওভার বাউন্ডারি। শেষ পর্যন্ত ৬৬ বলে ১০৫ রান করা স্মিথকে বোল্ড করেন সেই মোহাম্মদ শামি। শেষে ম্যাক্সওয়েলের ১৯ বলে ৫ চার ৩ ছক্কায় ৪৫ রানের ক্যামিওতে অজিদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ৩৭৪ রান। শামি নেন ৩ উইকেট।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫৩ রানে প্রথম উইকেট হারায় ভারত। মায়াঙ্ক আগরওয়াল ফিরেন ২২ রান করে। অপর ওপেনার শিখর ধাওয়ান অবশ্য ৮৬ বলে ৭৪ রানের স্বভাববিরুদ্ধ ইনিংস উপহার দেন। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ২১ রানের বেশি করতে পারেননি। আইপিএলে দারুণ করা লোকেশ রাহুলও (১২) ব্যর্থ। মিডল অর্ডারে নেমে আসল খেলাটা দেখান অল-রাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়া। অ্যাডাম জাম্পার শিকার হওয়ার আগে তিনি খেলেন ৭৬ বলে ৪ বাউন্ডারি এবং ৪ ওভার বাউন্ডারিতে ৯০ রানের ইনিংস। বাকিদের ব্যর্থতায় ভারত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩০৮ রান তুলতে সক্ষম হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা