kalerkantho

রবিবার । ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৭ রবিউস সানি                    

কেরানীগঞ্জে কিশোরীকে গণধর্ষণ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেরানীগঞ্জে কিশোরীকে গণধর্ষণ

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আইনতা সরিঘাট এলাকায় ঘুরতে গিয়ে এক কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে তার বড় বোন থানায় একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনায় সোমবার রাতে পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ছয় জন ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। পরে অভিযুক্তরা আদালতে ধর্ষণের কথা স্বীকার করে।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আশিকুজ্জামান জানান, গত ২০ এপ্রিল দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন ধলেশ্বর এলাকার এক কিশোরী পার্শ্ববর্তী এলাকার আইনতা সারিঘাট এলাকায় বিকালে ঘুরতে যায়। সেখানে মেয়েটিকে আকাশ নামের একটি ছেলে তার বাড়িতে যাওয়ার জন্য প্রস্তাব দেন। তখন মেয়েটি তার প্রস্তাবে রাজি না হলে আকাশ রায়হান নামের আরেকটি ছেলেকে ডাকেন। রায়হান মেয়েটির পূর্ব পরিচিত। রায়হান এসে মেয়েটিকে বিভিন্নভাবে কথার প্যাচে ফেলে সারিঘাট এলাকায় একটি শুকনো নদীর ওপারে ঘুরতে নিয়ে যায়। সেখানে নির্জনস্থানে নিয়ে আট থেকে দশজন মিলে জোরপূর্বক মেয়েটিকে গণধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে মেয়েটিকে হত্যার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে সাবাই ফিরে যায়। এরপর মেয়েটি বাড়িতে গিয়ে তার স্বজনদের কাছে বিষয়টি জানায়। তখন মেয়ের বড় বোন পিংকি আক্তার বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। 

তিনি আরো বলেন, মামলা হওয়ার পর আমরা প্রথমে বেনামীদের নাম ঠিকানা ও তাদের স্থান শনাক্ত করি। এরপর সোমবার রাতে অত্র থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ছয় ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করি বাকী আসামিদের দুই-এক দিনের মধ্যে গ্রেপ্তার করতে পারবো।

মামলার বাদী পিংকি আক্তার বলেন, ‘আমার বোন নাবালিকা। ওর উপর নির্মম পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছে যা সমাজ বিরোধী। আমি পুলিশ ভাইদের কাছে অনুরোধ করছি, এ ঘটনার সাথে যারা জড়িত রয়েছে তাদের সাবাইকে গ্রেপ্তার করে ধর্ষণের সর্বচ্চো শাস্তির ব্যবস্থা করবেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা