kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাউতেলার জন্য ১০ ঘণ্টা অপেক্ষা করা কে এই আরপি? পান্ত বললেন 'আমি না'

বিনোদন ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২২ ১০:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাউতেলার জন্য ১০ ঘণ্টা অপেক্ষা করা কে এই আরপি? পান্ত বললেন 'আমি না'

'আরপি নামে কেউ একজন আমার জন্য হোটেল লবিতে ১০ ঘণ্টা অপেক্ষা করেছিল। ' সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে উর্বশী রাউতেলার করা এমন দাবিকে ভিত্তিহীন ও মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিলেন ভারতীয় জাতীয় দলের ক্রিকেটার ঋষভ পান্ত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঋষভ পান্ত এই বিষয়ে বলেন, লোকজন সাক্ষাৎকারে 'মিথ্যা' কথা বলে।

নেটজগতে অভিনেতা উর্বশী রাউতেলা এবং ক্রিকেটার ঋষভ পান্তের মধ্যে বিবাদ কমছেই না।

বিজ্ঞাপন

এর আগেও বলিউডের লাস্যময়ী এই নায়িকার সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারের সম্পর্কের গুঞ্জন ভেসে উঠেছিল।  দুজনের একসঙ্গে তোলা অনেক ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পায়।  মুম্বাইয়ে একবার একসঙ্গে দেখা যাওয়ার পর একপর্যায়ে দুজনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে বলেও ধোঁয়া উঠেছিল নেট জগতে।  

তবে বলিউড হাঙ্গামার সঙ্গে একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে উর্বশী বলেন, আমি নয়াদিল্লিতে শুটিং করছিলাম এবং রাতে পৌঁছেছি। আমাকে দ্রুত প্রস্তুত হতে হয়েছিল।  কারণ অভিনেত্রীদের প্রস্তুত হতে সময় লাগে। মিস্টার আরপি হোটেলের লবিতে আমার জন্য অপেক্ষা করছিল। আমার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল। আমি এতটাই ক্লান্ত ছিলাম যে আমি ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। পরে দেখি ১৬-১৭টি মিসড কল রয়েছে ফোনে। আমার এত খারাপ লেগেছিল যে আমার সঙ্গে কেউ দেখা করার জন্য এসেছিল অথচ আমি গেলাম না! পরে আমি তাকে বলেছিলাম আপনি মুম্বাই এলে দেখা হবে আমাদের। পরবর্তী সময়ে আমরা মুম্বাইয়ে দেখা করেছিলাম।

কে এই আরপি?- এই প্রশ্নের উত্তরে উর্বশী সহজভাবে বলেছিলেন, আমি তার নাম বলব না।

কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলেছেন যে উর্বশী আর কারো নয়, ভারতীয় জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ঋষভ পান্তের কথাই বলছেন। এ নিয়ে তৈরি হয়েছে অনেক গুঞ্জন।  

গতকাল বৃহস্পতিবার ঋষভ তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে একটি নোট পোস্ট করেছেন, যেখানে লেখা- এটা হাস্যকর যে কিভাবে লোকেরা শুধু সামান্য জনপ্রিয়তার জন্য এবং শিরোনামে থাকার জন্য সাক্ষাৎকারে মিথ্যা কথা বলে! খ্যাতি ও নামের জন্য মানুষের কী পিপাসা! ঈশ্বর তাদের মঙ্গল করুক।  লেখাটির সঙ্গে ঋষভ হ্যাশট্যাগ দিয়ে জুড়ে দেন- 'আমার পিছু ছাড়ো বোন', 'মিথ্যারও সীমা থাকে' ইত্যাদি।  তবে কিছু সময় পর পোস্টটি মুছে দেন এই তারকা ক্রিকেটার।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।



সাতদিনের সেরা