kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

উল্লাপাড়ায় সড়ক ঘেঁষে পুকুর খনন, ধসে পড়ছে এলজিইডির পাকা রাস্তা

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২২ অক্টোবর, ২০২০ ১১:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উল্লাপাড়ায় সড়ক ঘেঁষে পুকুর খনন, ধসে পড়ছে এলজিইডির পাকা রাস্তা

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বিভিন্ন এলাকায় এলজিইডির পাকা সড়কপথ পুকুরে ধসে যাচ্ছে। সরকারি বিধি না মেনে সড়ক ঘেঁষে ব্যক্তিমালিকানায় পুকুর খননের কারণে সড়কের এ ক্ষতি হচ্ছে। সড়কের ক্ষতিতে সুষ্ঠু ও সহজ চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

এদিকে সড়ক রক্ষায় গাইড ওয়াল নির্মাণে অনেক পুকুর মালিক বাধা দিচ্ছে বলে জানা যায়। উল্লাপাড়া উপজেলায় এলজিইডি থেকে গত কয়েক বছরে অনেকগুলো গ্রামীণ সড়ক পাকাকরণ হয়েছে। নতুন উদ্যোগে আরো কাঁচা সড়ক পাকাকরণ হচ্ছে। আগামীতে পর্যায়ক্রমে গ্রামীণ কাঁচা সড়কগুলো পাকা করা হবে বলে জানানো হয়।

উল্লাপাড়ার বিভিন্ন ইউনিয়নে এলজিইডির সড়ক ঘেঁষে বহুসংখ্যক পুকুর রয়েছে। এর মধ্যে রামকৃষ্ণপুর, সলংগা, পূর্ণিমাগাঁতী, কয়ড়া ইউনিয়ন এলাকায় সড়ক ঘেঁষে বেশিসংখ্যক পুকুর আছে। সড়কপথ ঘেঁষে প্রতিবছরই একের পর এক নতুন পুকুর খনন করা হচ্ছে। সরকারি বিধি-বিধান না মেনে মাছ চাষের জন্য ব্যক্তিমালিকানার পুকুরগুলো খনন করা হয়েছে এবং খনন করা হচ্ছে আরো নতুন পুকুর। প্রায় সবগুলো পুকুরই  বেশ গভীর। পুকুরের চালা বানানোর জন্যও ব্যবহার করা হচ্ছে সরকারি সড়কপথ।

এলজিইডি সূত্রে ইমারত নির্মাণ বিধিমালা ১৯৯৬-এর ধারা ২৮ মোতাবেক, নিজ ভূমির কমপক্ষে ১০ ফুট অভ্যন্তরে পুকুর বা জলাশয় সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। সরকারি সড়কের কিনারা থেকে কমপক্ষে ১০ ফুট দূরত্বে (জায়গা রেখে) পুকুর কিংবা জলাশয় খনন করতে হবে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, সলংগা ইউনিয়নের গোজা সড়ক, রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অলিদহ সড়ক, ধরইল সড়কের অনেক অংশ সংলগ্ন পুকুরে ধসে গেছে। ধামাইলকান্দি-সলংগা পাকা সড়কপথ কয়েক মাস আগে মেরামত করা হয়েছে। গোজা এলাকায় সড়ক ধসে ক্ষতি হয়েছে। অলিদহ এলাকায় বেশ কয়েক জায়গায় ও ধরইল সড়কের কালিকাপুরে পুকুরে ধসে গেছে সড়কের অংশ।

উপজেলা প্রকৌশলী মাঈন উদ্দিন বলেন, বিধিমোতাবেক সড়কের কিনারা থেকে কমপক্ষে ১০ ফুট জায়গা রেখে তবেই পুকুর খনন করতে হবে। এতে সড়কের স্থায়িত্ব ও গুণগত মান বজায় থাকে। সেখানে পুকুরগুলো সড়ক ঘেঁষে কাটা এবং চালা হিসেবে সরকারি সড়কপথ ব্যবহার করায় ক্ষতি হচ্ছে সড়কপথের। সেখানে সড়ক টিকছে না। এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামত ও রক্ষায় গাইডওয়াল নির্মাণে সরকারি বিপুল অর্থ ব্যয় হচ্ছে। অনেক জায়গায় গাইডওয়াল নির্মাণ করতে গেলে পুকুর মালিকরা বাধা দিচ্ছেন বলে তিনি জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা