kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

মাদারগঞ্জে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারের ১৫ দিনের জেল

জামালপুর প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৯:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাদারগঞ্জে এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারের ১৫ দিনের জেল

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় এ কে এম সিরাজুল ইসলাম নামের একজন ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করে ১৫ দিনের বিনাশ্রম করাদ- ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলায়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এ অভিযান চালানো হয়। 

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলার এ কে এম সিরাজুল ইসলাম নিজেকে একজন এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে মাদারগঞ্জ পৌরসভার বালিজুড়ি বাজারে নিউ সেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চেম্বারে বসে দীর্ঘদিন ধরে রোগী দেখে আসছিলেন। স্থানীয় অন্যান্য ক্লিনিকেও তিনি রোগী দেখতেন। ভুক্তভুগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী হাকিম মো. আমিনুল ইসলাম আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আকস্মিক ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালান। এ সময় চেম্বারে রোগী দেখা অবস্থায় এ কে এম সিরাজুল ইসলামকে হাতেনাতে আটক করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের জিজ্ঞাসাবাদে এমবিবিএস পাসের বৈধ কোনো সনদপত্র দেখাতে পারেননি তিনি।

পরে নির্বাহী হাকিম মো. আমিনুল ইসলাম ২০১০ সালের বাংলাদেশ মেডিক্যাল ও ডেন্টাল কাউন্সিল আইনের ২৯ এর ১ ও ২ ধারায় ভুয়া ডাক্তার এ কে এম সিরাজুল ইসলামকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম করাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের রায় ঘোষণার পর তাকে জামালপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মাদারগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. মাজহারুল ইসলাম ও মাদারগঞ্জ থানা পুলিশ এ অভিযানে অংশ নেন। 

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম মো. আমিনুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আইন অনুযায়ী বিডিএস ও এমবিবিএস সনদ ছাড়া কেউ নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয় দিতে পারবেন না। অভিযানের সময় এ কে এম সিরাজুল ইসলামের কাছ থেকে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ের প্যাড জব্দ করা হয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা