kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

গেম

লড়াইটা এবার চাঁদে

এস এম তাহমিদ   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লড়াইটা এবার চাঁদে

জনপ্রিয় শ্যুটার গেম ‘ডেসটিনি’র নাম শোনেনি এমন গেমার দুর্লভ। মাত্র কিছুদিন আগে নির্মাতা ‘বাঞ্জি’ ‘ডেসটিনি ২’ বিনা মূল্যে খেলার সুবিধা করে দিয়েছে। ফলে গেমটির প্রতি নতুন করে ঝুঁকছেন অনেক গেমার। তবে আজকের লেখাটি মূল গেম নিয়ে নয়, বরং এর নতুন চ্যাপ্টার ‘শ্যাডোকিপ’ নিয়ে।

 

আজ থেকে প্রায় ৭০০ বছর পরের কাহিনি নিয়ে ডেসটিনি সিরিজের গেমগুলো তৈরি। মানবসভ্যতা তত দিনে পৃথিবীর গণ্ডি পেরিয়ে অন্যান্য গ্রহেও ছড়িয়ে পড়েছে। মহাবিশ্বের এক রহস্যময় শক্তি পৃথিবীর মানবসভ্যতাকে প্রায় শেষ করে দেয়। কিন্তু বিশ্বের শেষ শহরটিকে রক্ষা করে আরেকটি রহস্যময় শক্তি ‘দ্য ট্রাভেলার’। ট্রাভেলারের কাছ থেকে পৃথিবী ধ্বংসকারী ডার্কনেসের সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা ‘দ্য লাইট’ কিছু যোদ্ধা সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়। এ যোদ্ধাদের বা গার্ডিয়ানদের লড়াই নিয়েই ডেসটিনি ১ ও ২ গেমগুলোর ঘটনাবলি।

‘ডেসটিনি ২’-এর নতুন চ্যাপ্টার শ্যাডোকিপ। মূল গেমের সঙ্গে সরাসরি সংযুক্ত নয় এটি, এটিকে ‘ডেসটিনি ২.৫’ বললেও ভুল হবে না। নতুন গেমপ্লে, নতুন এলাকা এবং নতুন শত্রু দিয়ে সাজানো এ চ্যাপ্টার। এবারের পটভূমি চাঁদ, আর সেখানে গঠিত নতুন হাইভ কেল্লা। গেমারকে মানবজাতি টিকিয়ে রাখার জন্য সে কেল্লা এবং তা ব্যবহারকারী হাইভ, কাবাল, ভেক্স ও স্কর্নদের দমন করতে হবে। এ ছাড়া গেমটিতে যুক্ত হচ্ছে নতুন আরো একটি শত্রু—নাইটমেয়ার বা দুঃস্বপ্ন। ডার্কনেসের শক্তিতে গেমারের বেছে নেওয়া গার্ডিয়ানের সবচেয়ে কষ্টদায়ক স্মৃতিগুলো বাস্তবরূপে ফিরে আসবে সেই গার্ডিয়ানকেই পরাস্ত করতে। নাইটমেয়ার সবচেয়ে কঠিন শত্রুদের একটি।

স্বাভাবিকভাবেই লুটার-শ্যুটার ঘরানার এ গেমে নতুন চ্যাপ্টার মানেই সঙ্গে আসবে নতুন লুট বা নানাবিধ আইটেম। আর সেগুলো পেতে হলে খেলতে হবে নতুন সব রেইড মিশন এবং পরাস্ত করতে হবে শক্তিশালী সব বস। চ্যাপ্টারের সব ঘটনা চাঁদে ঘটবে। ফলে গেমার বিশাল এক নতুন এলাকা পাবেন ঘুরে বেড়ানোর জন্য। রেইডের পাশাপাশি দলবদ্ধভাবে মিশন খেলা বা একে অপরের সঙ্গে লড়াইও করতে পারবেন গেমাররা। ডেসটিনি সিরিজটিই তৈরি করা হয়েছে মাল্টিপ্লেয়ার খেলার জন্য, নতুন চ্যাপ্টারও এর ব্যতিক্রম নয়।

যারা এরই মধ্যে ‘ডেসটিনি ২’ খেলা শুরু করে দিয়েছেন, তারা চ্যাপ্টারটি আলাদা কিনে খেলতে পারবেন, আগের চ্যাপ্টারের কোনো প্রয়োজন নেই।

 

খেলতে যা যা লাগবে

উইন্ডোজ ৭, ইন্টেল কোর আই৩ বা সমমানের এএমডি প্রসেসর

৬ গিগাবাইট র‌্যাম

এনভিডিয়া জিটিএক্স ৬৬০ বা এএমডি রেডিওন এইচডি ৭৮৫০ ২ গিগাবাইট জিপিউ

১০৫ গিগাবাইট স্টোরেজ

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট

 

বয়স

১৮+

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা