kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গেম

এক সন্ন্যাসীর অভিযান

এস এম তাহমিদ   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এক সন্ন্যাসীর অভিযান

নিত্যনতুন গেমের ফাঁকে কিছু পুরনো গেম গেমারদের মনে করিয়ে দেয়—ক্লাসিক গেমগুলোও কোনো দিক থেকে খুব একটা কম ছিল না। সেসবের একটি হচ্ছে ‘জেড এম্পায়ার’। আরপিজি ঘরানার গেমটি তৈরি করেছে ‘ম্যাস ইফেক্ট’, ‘স্টার ওয়ার্স : নাইটস অব দ্য ওল্ড রিপাবলিক’ এবং ‘ড্রাগন এজ’ গেমগুলোর জন্য বিখ্যাত স্টুডিও বায়োওয়্যার।

চীনের মধ্যযুগ এ গেমের পটভূমি, তবে সত্যিকার কোনো অঞ্চল বা ইতিহাস নিয়ে গেমটি তৈরি হয়নি, বরং সে সময়ের প্রেক্ষাপট ও কিংবদন্তির ওপর ভিত্তি করেই তৈরি করা হয়েছে গেমের দুনিয়া ও ঘটনাবলি।

দেবালোক ও মর্ত্যলোক—দুটি অংশে গেমের দুনিয়া বিভক্ত এবং জাদুবিদ্যা এ দুনিয়ার অন্যতম অংশ। গেমের মূল চরিত্র একজন আধ্যাত্মিক সন্ন্যাসী। এক দিন অনুশীলন শেষে মঠে ফিরে আবিষ্কার করেন, তাঁর গ্রাম ছারখার করে এবং গুরুকে হত্যা করে সব ধ্বংস করে গেছে কেউ। এখান থেকেই তাঁর যাত্রা শুরু, কে বা কারা এ কাজ করেছে, কেনই বা করেছে তা খুঁজে বের করার মিশন।

গেমের কাহিনি শুধু অ্যাকশননির্ভর নয়, বরং অন্যান্য বায়োওয়্যার আরপিজি গেমের মতোই অন্যান্য চরিত্রের সঙ্গে কথাবার্তা বলে এবং তাদের সাহায্য করার মাধ্যমেও এগোবে। গেমের পুরোটা শেষ না করা পর্যন্ত ঘটনার মারপ্যাঁচ পুরোপুরি ধরাও যাবে না। গেম স্কিল না বাড়িয়ে গেমে তেমন কায়দা করা যাবে না, আবার ঠিক কেমন চরিত্র গেমার তৈরি করতে চান, সেটিও খেয়াল রেখে তার ডেভেলপমেন্ট করতে হবে। অনেকে হয়তো চাইবেন শক্তিশালী যোদ্ধা তৈরি করতে, আবার কেউ বা চাইবেন শুধু বাকপটু ও স্টেলথনির্ভর চরিত্র তৈরি করতে। গেমটিতে সঙ্গী-সাথির ব্যবস্থাও আছে, তাই গেমার কখনোই একা থাকবেন না। মার্শাল আর্ট ও ছোটখাটো অস্ত্র গেমের মূলশক্তি, সঙ্গে আছে জাদুবিদ্যা। সব কিছু আয়ত্তে আনার পেছনেও অনেকটা সময় ব্যয় হবে। অবশ্য কেউই আরপিজি গেম দ্রুত শেষ করার জন্য আসলে খেলেন না।

বেশ পুরনো এ গেমটির গ্রাফিকস এখনো খারাপ নয়, বিশেষ করে যাঁরা ল্যাপটপে বা একটু পুরনো পিসিতে খেলার জন্য গেম খুঁজছেন, তাঁদের জন্য এটি একটি আদর্শ গেম।

 

খেলতে যা যা লাগবে

উইন্ডোজ ৭ সিস্টেম

অন্তত ১ গিগাহার্জ ডুয়ালকোর প্রসেসর

৫১২ মেগাবাইট র‌্যাম

২৫৬ মেগাবাইট জিপিউ

হার্ড ডিস্কে ৮ গিগাবাইট জায়গা

 

বয়স

গেমটির ঘটনাবলি শিশুদের জন্য নয়, অন্তত কিশোর বয়সীদের জন্যই গেমটি আদর্শ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা