kalerkantho

স্টোকসের সেঞ্চুরি বিশ্রামে স্মিথ

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্টোকসের সেঞ্চুরি বিশ্রামে স্মিথ

ফিল হিউজের মৃত্যুর পর প্রশ্নটা জোরেশোরে উঠতে শুরু করে। হেলমেট কতটা নিরাপত্তা দিচ্ছে ব্যাটসম্যানকে? কে জানত, হিউজের কাছের বন্ধুদের একজন স্টিভেন স্মিথকে দিয়েই শুরু হবে নতুন এক অধ্যায়ের। মাথায় আঘাত পাওয়া ক্রিকেটারের পরিবর্তে নামানো যাবে তারই মতো আরেক ক্রিকেটারকে, যে ব্যাটিং-বোলিং দুই-ই করতে পারবে। প্রথাগত দ্বাদশ ক্রিকেটারের মতো স্রেফ ফিল্ডিংয়েই সীমাবদ্ধ থাকবে না তার দায়িত্ব। সব শেষ বৈঠকে এই নিয়ম অনুমোদন করে আইসিসি। সেই নিয়মেই মাথায় আঘাত পেয়ে টেস্টের মাঝপথে স্টিভেন স্মিথ সরে দাঁড়ানোর পর প্রথম ‘কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট’ হলেন মার্নাস লাবুশানে। লর্ডস টেস্টের পঞ্চম দিনে স্মিথের জায়গায় নেমেছেন লাবুশানে। দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৯ রানও করেছেন তিনি।

চতুর্থ দিনে শেষ প্রহরে ডেভিড ওয়ার্নার ‘জীবন’ দিয়েছিলেন বেন স্টোকসকে। সেই স্টোকস, কিছুদিন আগেই এই মাঠে ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপ জেতানোয় যাঁর বড় অবদান। এবার অ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্টেও বোধহয় বাঁচিয়ে দিলেন ইংল্যান্ডকে। চতুর্থ দিনের শেষবেলায় ৪ উইকেট পড়ার পর নেমে বিপদটা বাড়তে দেননি। কাল জস বাটলার ও জনি বেয়ারস্টোকে নিয়ে যথাক্রমে ৯০ ও ৯৭ রানের দুটি গুরুত্বপূর্ণ জুটি গড়েছেন। নিজে তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের সপ্তম আর লর্ডসে দ্বিতীয় টেস্ট শতক। স্টোকসের শতরানে ৫ উইকেটে ২৫৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ড। ৪৮ ওভারে অস্ট্রেলিয়াকে জিততে হলে করতে হত ২৬৭ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে তারা ৬ উইকেটে ৪৭.৩ ওভারে করতে পেরেছে ১৫৪ রান। তাই শেষ পর্যন্ত ড্র-ই হয়েছে লর্ডস টেস্ট। জোফ্রা আর্চার এবং জ্যাক লিচ প্রত্যেকে নিয়েছেন ৩টি করে উইকেট। ক্রিকইনফো

মন্তব্য