kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

শামীমের পড়াশোনার দায়িত্ব নিল শুভসংঘ

শুভসংঘ ডেস্ক   

১৪ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শামীমের পড়াশোনার দায়িত্ব নিল শুভসংঘ

ধামরাইয়ের কালামপুরে শামীম হোসেনের পড়াশোনার দায়িত্ব নিল শুভসংঘ

ধামরাই উপজেলার কালামপুরের গ্রিন টাচ স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী শামীম হোসেন। মা-বাবা ও বোনকে নিয়ে ভালোই কাটছিল দিন। হঠাৎ এক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান শামীমের বাবা। শামীমের পরিবারে নেমে আসে দুর্ভোগ।

বিজ্ঞাপন

পরিস্থিতি সামাল দিতে শামীমের মা বিসিক অফিসে ঝাড়ুদারের কাজ নেন। কিন্তু সামান্য আয়ে সংসার চালানো দায় হয়ে পড়ে তাঁর। এবেলা খাবার জোটে তো ওবেলা জোটে না। এর মধ্যে তাঁর দুই ছেলে-মেয়ের পড়ার খরচ জোগানো একেবারেই দুরুহ হয়ে পড়ে। শামীমের পরিবারের এই দুর্ভোগের চিত্র নজরে আসে শুভসংঘের। দুর্দশাগ্রস্ত এই পরিবারটির পাশে দাঁড়াতে শামীমের জন্য প্রতি মাসে ব্যবস্থা করা হয় শিক্ষাবৃত্তির। সম্প্রতি শামীমের বাড়িতে গিয়ে শিক্ষাবৃত্তির প্রথম মাসের টাকা তার হাতে তুলে দেয় শুভসংঘ ধামরাই উপজেলা শাখা। শিক্ষাবৃত্তি পেয়ে শামীমের চোখেমুখে তখন আনন্দের ছাপ। শামীম তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলে, ‘বাবা হারানোর পর চোখেমুখে অন্ধকার নেমে এসেছিল। ভেবেছিলাম, পড়াশোনার ইতি টানতে হবে। মায়ের একার রোজগারে সংসার চলে না। বোনটাও সবেমাত্র পড়াশোনা শুরু করেছে। তাই ভেবেছিলাম, কাজে নেমে পড়ব, কিন্তু শুভসংঘ আমার অন্ধকার জীবনে একটু হলেও আলো এনে দিয়েছে। আমার পড়াশোনা বন্ধ হতে দেয়নি। শুভসংঘকে ধন্যবাদ দিলে ছোট করা হবে। আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, শুভসংঘ আমার মতো মাঝপথে হারিয়ে যাওয়া হাজারো শামীমের পথের দিশারি হবে। ’

ধামরাই শুভসংঘের সভাপতি মেহবিন আক্তার মুসফিকা বলেন, ‘শুভসংঘ সব সময় শুভ কাজে সবার পাশে থেকে মানুষের জন্য কাজ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা শামীমের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। আমরা অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাব সব সময়। আমরা ভবিষ্যতেও আমাদের এই শুভ কাজের ধারা অব্যাহত রাখব। ’

শামীমকে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করার জন্য উপস্থিত ছিলেন ধামরাই উপজেলা শুভসংঘের বন্ধু, আফরিনা তাবাসসুম, ওয়াসিম আকরাম, রাকিবুল হাসান সিয়াম প্রমুখ।

 



সাতদিনের সেরা