kalerkantho

ভালোবাসা থেকেই ফিরতে হলো

দুই বছর পর ‘থাকো মেঘ হয়ে’ টেলিছবি দিয়ে অভিনয়ে ফিরলেন সুজানা জাফর। কেন এত দিন অভিনয় করেননি, বর্তমান ব্যস্ততা, ঈদের পরিকল্পনা ইত্যাদি জানতে তাঁর সঙ্গে কথা বলেছেন সুদীপ কুমার দীপ

৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভালোবাসা থেকেই ফিরতে হলো

অভিনয়ে ফিরলেন। কেমন লাগছে?

ভালোবাসা থেকেই আবার ফিরতে হলো। ভক্তরা নিয়মিত আমার কাছে জানতে চায়, কেন কাজ করছি না, কেন তাদের বঞ্চিত করছি! একটা সময় মনে হলো আসলেই তো, আমি তাদের বঞ্চিত করব কেন? তা ছাড়া এভাবে চলতে থাকলে একসময় সবাই আমাকে ভুলে যাবে! পর পর দুই দিন শুটিং করেছি। মধ্যরাত পর্যন্ত কাজ হলেও বেশ উপভোগ করেছি।

 

এত প্রস্তাব থাকতে ‘থাকো মেঘ হয়ে’ দিয়ে ফিরলেন।

বিপাশা আপু, মিমি আপুদের যেসব নাটক দেখতাম সেগুলো মনে খুব দাগ কাটত। আবেগপ্রবণ হয়ে যেতাম। এখনকার গল্পে অতটা আবেগ খুঁজে পাই না। ‘থাকো মেঘ হয়ে’ একটু অন্য রকম। আমি চাই দর্শকরা আগে থেকে না জেনে টিভিতেই দেখুক।

 

দুই বছর দূরে ছিলেন কেন?

‘সুজানাস ক্লোজেট’ নিয়ে খুব ব্যস্ত সময় পার করেছি। নিজেকেই প্রায় ভুলে গিয়েছিলাম। প্রতি মাসে দুবাই থেকে ফেব্রিকস আনা, নিজে ডিজাইন করা, সেল ধরে রাখা—এসব সহজ কথা নয়! তা ছাড়া ক্রেতারা এখন  শপিং মলে গিয়ে শপিং করাটা ভুলে যাচ্ছে। অনলাইন শপিং জায়গা করে নিচ্ছে দিন দিন। সেদিকটাও ভাবতে হচ্ছে। কিভাবে আর অন্য কিছু চিন্তা করব!

 

এখন থেকে কি নিয়মিত অভিনয় করবেন?

মিডিয়ায় আমার সবচেয়ে ভালো লাগে মৌ আপুকে। তিনি কিন্তু নিয়মিত কাজ করেন না! তার পরও আমরা অপেক্ষায় থাকি কখন তাঁকে দেখতে পাব। আমার ইচ্ছা বেছে বেছে কিছু ভালো কাজ করার। সামনে ইফতেখার আহমেদ ফাহমির পরিচালনায় একটি কাজ করার বিষয় চূড়ান্ত হয়েছে। ঈদের পরেই শুটিং।

 

মিউজিক ভিডিও বা বিজ্ঞাপন?

বছরে একটি করে মিউজিক ভিডিও করার পরিকল্পনা করেছি বেশ আগে থেকেই। এ বছর বালাম ভাইয়ের সঙ্গে ‘হঠাৎ’ করে দারুণ প্রশংসা পেয়েছি। সামনে অদিত ভাইয়ের একটি প্রজেক্টে কাজ করার কথা।

 

ঈদে কী করবেন?

ছয়-সাত বছর ধরে ঈদে একটাই পরিকল্পনা থাকে। ঈদের দিনটা প্রতিবন্ধীদের সঙ্গে কাটানো। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না। ওদের সঙ্গেই কোরবানি দেব। এর মধ্যে ওরা আমাকে ফোন করেছে। কবে যাব জানতে চেয়েছে। আমাকে নিয়ে নাকি কী কী বিষয় ভেবেও রেখেছে। অপেক্ষায় আছি দিনটার।

মন্তব্য