kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ছোটবেলা থেকেই স্বপ্নার পছন্দ ১০ নম্বর জার্সি

নজরুল ইসলাম রাজু, রংপুর   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছোটবেলা থেকেই স্বপ্নার পছন্দ ১০ নম্বর জার্সি

সিরাত জাহান স্বপ্না

রংপুর সদরের জয়রাম গ্রাম। আগে এই গ্রাম নিয়ে মানুষের তেমন আগ্রহ ছিল না। অথচ জয়রাম এখন আলোচনায়। এর কারণ জয়রাম গ্রামের নারী ফুটবলার সিরাত জাহান স্বপ্না।

বিজ্ঞাপন

তাঁর দল সাফ ফুটবলের শিরোপা জয় করেছে। এ নিয়ে সারা দেশ আনন্দে ভাসছে। জয়রামেও চলছে বিজয় মিছিল, মিষ্টি বিতরণ।

১০ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় সিরাত জাহান স্বপ্না খেলার মাঠে কখন গোল দেবেন, এই অপেক্ষায় গ্যালারির দর্শকরা তাকিয়ে থাকত। সেই স্বপ্নাদের মাথায় এখন সাফ শিরোপার মুকুট। মুঠোফোনে স্বপ্না কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘১০ নম্বর জার্সি পরে শুধু ম্যারাডোনা, মেসি, রোনালদোকে অনুসরণ করে খেলছি। তবে আমি ছোট থেকেই ১০ নম্বর জার্সি পরে খেলতে ভালোবাসি। শিখতে চাই, ভালোভাবে খেলতে চাই, বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করতে চাই। এই শুধু দোয়া সবার কাছে কামনা করছি। ’

স্বপ্না বলেন, ‘এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি রংপুর যাওয়ার। তবে দু-এক দিনের মধ্যে অবশ্যই যাব। রংপুরের মানুষের প্রতি শ্রদ্ধা-সম্মান জানাব। তারা আমার জন্য যা করেছে, তা ভোলার মতো নয়। তবে সারা দেশে বিজয় মিছিল ও আনন্দ মিছিল হচ্ছে। মানুষ যেভাবে আমাদের ভালোবাসা জানিয়েছে তাতে আমাদের দল অত্যন্ত খুশি। ’

স্বপ্নার মা লিপি বেগম বলেন, ‘মেয়ের সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে কয়েক দফা। মেয়ের জন্য ভালো খাবার রান্না করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। তবে আমার মেয়ের জন্য উত্তরাঞ্চলবাসী অপেক্ষায় আছে। আমরা অপেক্ষায় আছি। আমার মন চাচ্ছে মেয়েকে ভালোভাবে দেখতে। তবে ভিডিও কলে কয়েকবার মেয়েকে ফোন করেছি, দেখেছি। আমরা অত্যন্ত খুশি দেশবাসীর কাছে। আর প্রধানমন্ত্রী আমাদের জন্য যা করেছেন তা প্রকাশ করার মতো নয়। ’

স্বপ্নার মামা মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমার ভাগ্নিকে ছোটবেলা থেকেই লালন-পালন করে মানুষ করেছি। ছোট থেকেই তার খেলার প্রতি আগ্রহ ছিল। আজ দেশবাসী তাকে চেনে, তার জন্য রংপুরকে চেনে, ১৭ উপজেলার মধ্যে সদ্যপুষ্করিণী ইউনিয়নের জয়রাম গ্রামকেও চেনে মানুষ। আমরা অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। দোয়া করি, আরো যেন সামনের দিকে ভালো খেলতে পারে আমার ভাগ্নি। ’

 

 

 



সাতদিনের সেরা