kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১২ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৩০ সফর ১৪৪৪

আওয়ামী লীগ চাঙ্গা, অন্যরা দ্বিধায়

অমিতাভ দাশ হিমুন, গাইবান্ধা   

১১ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আওয়ামী লীগ চাঙ্গা, অন্যরা দ্বিধায়

গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে উপনির্বাচন ঘিরে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে। তবে অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর নেতারা সুষ্ঠু ভোট নিয়ে সংশয়ে আছেন।

আওয়ামী লীগ নেতারা নানা সামাজিক আয়োজনের মধ্য দিয়ে অঘোষিত নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন। এলাকায় এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের চাঙ্গা করতে শুরু হয়েছে নানামুখী তৎপরতা।

বিজ্ঞাপন

তবে আলোচনার কেন্দ্রে রয়েছেন প্রয়াত ডেপুটি স্পিকারের মেয়ে ও ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারজানা রাব্বী বুবলী এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন। তাঁদের সঙ্গে মনোনয়ন দৌড়ে আরো রয়েছেন ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জি এম সেলিম পারভেজ ও যুবলীগকর্মী সুশীল চন্দ্র সরকার।

উল্লেখ্য, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া এই আসন থেকে সাতবার নির্বাচিত হন। গত ২২ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। ২৪ জুলাই আসনটি শূন্য ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সংসদ সচিবালয়। নিয়মানুযায়ী আগামী ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরপর শুরু হয় আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ। কেন্দ্রেও চলছে দলের উচ্চ পর্যায়ের দৃষ্টি আকর্ষণের প্রতিযোগিতা। বুবলী ও রিপনের পক্ষে-বিপক্ষে সরব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। ফলে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনী উত্তাপ।

এ বিষয়ে ফারজানা রাব্বী বুবলী জানান, প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি তাঁর বাবার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে কাজ করেছেন। বাবার অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে নৌকা প্রতীক চাইবেন।

অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহমুদ হাসান রিপন এর আগে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক ছিলেন। তিনি বলেন, ‘ফুলছড়ি-সাঘাটাবাসীর দুঃসময়ে তাদের দুয়ারে দুয়ারে গিয়েছি। ’

আরেক মনোনয়নপ্রত্যাশী জি এম সেলিম পারভেজ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। তিনি এর আগে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমি আশাবাদী, এবার দলের মনোনয়ন পাব। ’ এদিকে এই উপনির্বাচনে অন্যদলগুলোর মধ্যে জেলা বিএনপির সহসভাপতি ফারুক আলম সরকার ও সাঘাটা উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জুর নাম শোনা যাচ্ছে।



সাতদিনের সেরা