kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

চিরচেনা রূপে ফিরছে চট্টগ্রাম নগর

রবিবার পর্যন্ত ট্রেনের টিকিট খালি নেই, সড়কপথেও মানুষের ঢল

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদের ছুটি শেষে বন্দর নগর চট্টগ্রামে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। একইভাবে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানেও যাচ্ছে। ঈদের ছুটিতে অনেকটাই ফাঁকা হয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম আবার আগের চিরচেনা রূপে ফিরছে। কাল থেকে আবার প্রাণচাঞ্চল্য ফিরতে পারে।

বিজ্ঞাপন

গতকাল শুক্রবার দুপুরের পর থেকে নগরের বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল, অলংকার, একে খান, কর্নেলহাট, দামপাড়া, কদমতলী বাস টার্মিনাল, কর্ণফুলী শাহ আমানত সেতু এলাকা, অক্সিজেন, সিনেমা প্যালেসসহ স্থায়ী ও অস্থায়ী বাস টার্মিনালগুলোতে ভিড় বাড়তে থাকে।

সেই সঙ্গে ছিল চট্টগ্রাম রেলস্টেশনেও মানুষের উপচে পড়া ভিড়। গতকাল সড়কের পাশাপাশি রেল, নৌপথে অনেকে চট্টগ্রাম ফিরেছে। আগামীকাল রবিবার থেকে সরকারি-বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিতসহ সব ধরনের প্রতিষ্ঠান খোলা। এ কারণে এবার ঈদে বাড়ি যাওয়া লোকজন আজকের মধ্যে ফিরতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ধারণা।

এদিকে যাত্রীদের অভিযোগ, চট্টগ্রাম আসার পথে বাসসহ বিভিন্ন যানবাহনে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। নগরের অভ্যন্তরে বিভিন্ন সড়কে যানবাহন কম থাকায় মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। দামপাড়া থেকে ঢাকা যাচ্ছিলেন ফোরকান উদ্দিন নামের এক ব্যক্তি। তিনি বলেন, ‘আমি রাঙামাটি থেকে অক্সিজেন মোড় আসার পর বাস পাচ্ছি না। তখন সিএনজি অটোরিকশায় করে এখানে আসতে ১৭০ টাকা দিতে হয়েছে। অন্য সময় ১২০-১৩০ টাকায় আসতে পারি। ’

চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী মঞ্জু গতকাল বিকেলে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আজকে (গতকাল) বিকেল থেকে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। তবে যানজট তেমন নেই। দুরপাল্লার কিছু গণপরিবহনে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ শোনা যাচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে যাত্রীদের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ আমরা পাইনি। ’

চট্টগ্রাম রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক রতন কুমার চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, আগামী ৮ মে পর্যন্ত চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা, সিলেট, ময়মনসিংহসহ বিভিন্ন রুটে ট্রেনের আসন খালি নেই। চট্টগ্রামেও ফিরতে শুরু করেছে ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাওয়া মানুষ।

এদিকে নগরের বিনোদনকেন্দ্রগুলো লোকেলোকারণ্য। ঈদের দিন থেকে শুরু করে পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা, ফয়স লেক, কাজীর দেউড়ি শিশু পার্ক, নেভাল একাডেমি সড়ক, কর্ণফুলী নদীর তীরবর্তী বিভিন্ন এলাকাসহ সব বিনোদনকেন্দ্রে দর্শনার্থীদের ভিড়। গতকাল শুক্রবার এসব বিনোদনকেন্দ্রে ঠাঁই নেই অবস্থা ছিল।



সাতদিনের সেরা