kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ২৪ মে ২০২২ । ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২২ শাওয়াল ১৪৪৩  

দেশের স্বার্থবিরোধী কাজে বিএনপির ৮ লবিস্ট নিয়োগ

সংসদে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের স্বার্থবিরোধী কাজে বিএনপির ৮ লবিস্ট নিয়োগ

আব্দুল মোমেন

বিএনপি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধে প্রথম লবিস্ট নিয়োগ করেছিল। দেড় লাখ ডলার ব্যয়ে একটি মার্কিন প্রতিষ্ঠানকে এ জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়। এভাবে দেশের স্বার্থবিরোধী কাজে আটটি প্রতিষ্ঠানকে লবিস্ট হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। লবিস্টের জন্য ব্যয় করা এই অর্থের উৎস নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে ৩০০ বিধিতে দেওয়া বিবৃতিতে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন। এর আগে গত রবিবার যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির লবিস্ট  নিয়োগ নিয়ে সংসদে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেছিলেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু ও বিএনপির সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশিদ।

বিবৃতিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সরকার ও বিএনপির মধ্যে মতামতের ভিন্নতা থাকতে পারে। তাই বলে দেশের ক্ষতি করা যাবে না। প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় ও তাঁর পরিবার যুক্তরাষ্ট্রে কোথায় যান, কী করেন—সেই খোঁজ নিতে এফবিআইয়ের প্রতি অ্যাপ্রোচ করেন বিএনপি নেতার ছেলে সিজার। তাঁরা জয়কে অপহরণের ষড়যন্ত্র করেছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে সিজার ও তাঁর সহযোগীদের সাজাও হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ১২টি আন্তর্জাতিক সংগঠন জাতিসংঘের পিসকিপিংয়ের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেলকে একটি চিঠি লিখেছে। তারা চিঠিতে নানা অপপ্রচার ও অনুমান তুলে ধরে বলে, র‌্যাব মানবাধিবার লঙ্ঘন করছে, তারা নানা অপকর্মে যুক্ত। এই অজুহাতে বাংলাদেশ থেকে তাদের শান্তিরক্ষায় না নিতে বলা হয়েছে। ২০২০ সালের ৮ নভেম্বর তারা এই অনুরোধ করে। দুই মাস হলো জাতিসংঘ এটি পেয়েছে। জাতিসংঘ জবাবে বলেছে, শান্তিরক্ষায় কাউকে নেওয়ার আগে তারা নিজের নিয়মে যাচাই-বাছাই করে। সুতরাং এসব অপপ্রচার জনগণের বিরুদ্ধে দুরভিসন্ধি।

দেশের অমঙ্গল ডেকে এনে নিজের ক্ষুদ্র স্বার্থ চরিতার্থ করতে বিএনপি নানামুখী অপচেষ্টা চালাচ্ছে দাবি করে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমাদের প্রতিপক্ষ দলের নেতারা বিভিন্ন দেশের প্রায় ১৮টি কমিটির লোকজনকে চিঠি দিয়েছেন।



সাতদিনের সেরা