kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন

শামীম ওসমানের সমর্থন কি জরুরি : আইভী

নারায়ণগঞ্জ কারো কাছে বর্গা দিইনি : তৈমূর

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

৫ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



শামীম ওসমানের সমর্থন কি জরুরি : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে নগরবাসীর আগ্রহের কমতি নেই। তারা প্রতিদিনই এর খোঁজখবর রাখছে। চোখ রাখছে ইলেকট্রনিক কিংবা প্রিন্ট মিডিয়ায়। এ ছাড়া চায়ের টেবিল থেকে পাড়া-মহল্লা কিংবা অফিস-আদালতেও চলছে নির্বাচনী আড্ডা।

বিজ্ঞাপন

চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে কে জয়ী হবেন, তা নিয়ে আলোচনা করছে তারা।

তবে ভোটের মাঠে সব কিছু ছাপিয়ে আলোচনায় আইভী ও তৈমূরের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি। নাওয়া-খাওয়া ভুলে তাঁরা প্রতিদিনই ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। অন্য পাঁচ মেয়র প্রার্থীর তেমন প্রচারণা চোখে না পড়লেও মাঝেমধ্যে ভোটের মাঠে থেকে জোরালোভাবে নিজের অস্তিত্ব্ব জানান দিচ্ছেন হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাসুম বিল্লাহ। কাউন্সিলর প্রার্থীরাও জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন। পিছিয়ে নেই সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদের প্রার্থীরাও।

গতকাল মঙ্গলবার সাবেক মেয়র আইভী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম গণসংযোগ করেন সিদ্ধিরগঞ্জে। নৌকা প্রতীকের ডা. সেলিনা হায়াত আইভী সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায় গণসংযোগ করেন। এ সময় তিনি তৈমূরকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ থেকে প্রত্যাহারের বিষয়ে বলেন, ‘এটা বিএনপির একটা কৌশল হতে পারে। তিনি আমার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। আমি কাউকে ছোট করে দেখছি না। আমি মাঠে লড়ছি তাঁর সঙ্গে। তিনি আমার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী, আরো প্রতিদ্বন্দ্বী আছে। আমি এভাবেই শেষ পর্যন্ত লড়ব। ’ সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সম্পর্কে তিনি বলেছেন, ‘তাঁর সমর্থন খুব কি জরুরি আজকের আমাদের এই নির্বাচনে?’ তিনি বলেন ‘আওয়ামী লীগে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকতে পারে, তবে কোনো কোন্দল নেই। আমরা দলের স্বার্থে সবাই এক। দিন শেষে আমরা সবাই শেখ হাসিনার কর্মী। ’

হাতি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার গণসংযোগ করেছেন সিটি করপোরেশনের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায়। গণসংযোগকালে তিনি বলেন, ‘বিএনপির কথায় আমি ২০১১ সালে বসে গিয়েছিলাম। এখন আমি জনগণের প্রার্থী। গত ১৮ বছরে সিটি করপোরেশনের যে ব্যর্থতা, তার কারণে জনগণ হাতি প্রতীকে ভোট দেবে। আর নারায়ণগঞ্জ কারো কাছে বর্গা দিইনি। ঢাকায় এসি রুমে বসে যে যে কথাই বলুক, বিএনপির লোকজন নৌকাকে ভোট দেবে না। ’

শামীম ওসমানের সমর্থন কি জরুরি

গতকাল সকালে সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায় গণসংযোগকালে সেলিনা হায়াত আইভী তাঁরই দলের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সম্পর্কে বলেছেন, ‘তিনি একজন মাননীয় এমপি। উনি ইচ্ছা করলেও আসতে পারবেন না। আমরা নির্বাচনের মধ্যেই থাকি। ’

নারায়ণগঞ্জ বর্গা দিইনি

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, ‘আমরা নারায়ণগঞ্জের নাগরিক। নারায়ণগঞ্জের সব রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের লোকজন আমার সঙ্গে আছেন। বিএনপির তৃণমূল নেতাকর্মীরা সব সময় আমার পাশে আছেন। ’ তিনি বলেন, ‘২০১১ সালে আমি বসিনি, আমার দল বসে গেছে। আমাকে দল বসিয়ে দিয়ে এখন যিনি নৌকার প্রার্থী তাঁকে (আইভী) বেনিফিট দিয়েছে। তাঁকে জয়লাভ করার সুযোগ করে দিয়েছে। মানুষ বলে, সেই প্রার্থীকেই জয়ী করানোর জন্য কোনো কোনো জায়গায় ইঞ্জিনিয়ারিং হচ্ছে। তবে মনে রাখবেন, বিএনপির লোকজনকে পেটালেও কারো কথায় তারা নৌকায় ভোট দেবে না। ’

তৈমূর আলম আরো বলেন, ‘আমি দেখি না বিএনপির কোনো লোক ঘরে বসে আছে। সব অঙ্গসংগঠনের লোকই আছে। প্রতিদিন তো সবার পক্ষে মিছিল করা সম্ভব না। আমি তো দেখিনি কেউ বসে আছে। ঢাকায় এসি রুমে বসে যে যে কথাই বলুক বিএনপির লোকজন নৌকাকে ভোট দেবে না। আমি রাজপথে গুলি খাওয়া লোক। গরুর মতো পুলিশ পিটিয়েছে, বহুবার জেল খেটেছি এই দলের জন্য। আমি নেতাকর্মীদের কাছে পরীক্ষিত ব্যক্তি। ’

তৈমূর আলম বলেন, ‘আমি মনে করি, আমার নির্বাচনের রাস্তাটাকে আমার দল প্রশস্ত করে দিয়েছে। বিএনপির লোকজন নৌকায় ভোট দেবে না, বরং নৌকার লোকজনের এখন সুযোগ হয়েছে আমাকে ভোট দেওয়ার। কারণ আমার দল আমাকে নিরপেক্ষ বানিয়ে দিয়েছে, জনগণের বানিয়ে দিয়েছে। সে জন্য তাদের শুকরিয়া করি। ’

নারায়ণগঞ্জ সদর, বন্দর ও সিদ্ধিরগঞ্জ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ১৬ জানুয়ারি। সিটির ভোটারসংখ্যা পাঁচ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭। নির্বাচনে মেয়র পদে সাতজন এবং ২৭টি ওয়ার্ডে ১৪৮ জন কাউন্সিলর ও ৩৪ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।



সাতদিনের সেরা