kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

নির্বাচনী সহিংসতা

কমলগঞ্জে সংসদ সদস্যের গাড়িবহরে হামলা

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

৪ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কমলগঞ্জের রহিমপুরে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদের গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আগামীকাল বুধবার রহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন।

ব্যক্তিগত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মৌলভীবাজারে ফিরছিলেন আব্দুস শহীদ।

বিজ্ঞাপন

পথে রহিমপুরের পাশে মুন্সীবাজার হয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসীর অনুরোধে চা খেতে নামেন তিনি। এ সময় তাঁকে সেখানকার নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয়ে বসানো হয়। এতে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ হয়েছে অভিযোগ তুলে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও ইটপাটকেল নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী জুনেল আহমেদ তরফদার ও তাঁর সমর্থকরা হামলা চালায়।

নির্বাচনী কার্যালয়ে অবস্থান করা নৌকার সমর্থকরা প্রতিরোধ গড়ে তুললে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। সংঘর্ষে সংসদ সদস্যের একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী ইমাম হোসেন সোহেল, দেহরক্ষী তরিকুল ইসলাম, গাড়িচালক স্বপন মিয়া, শ্রীমঙ্গলের যুবলীগ নেতা খালেদ সাইফুলসহ উভয় পক্ষের সাতজন আহত হয়। তবে সংসদ সদস্য অক্ষত আছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের মধ্যে গুরুতর পাঁচজনকে মৌলভীবাজার সদর ও সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই রাতেই সংসদ সদস্যের ছোট ভাই ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল বাদী হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক জুনেল আহমেদ তরফদারকে প্রধান আসামি করে ৩৫ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো কয়েকজনকে আসামি করে থানায় মামলা করলে রাতেই রহিমপুর ইউনিয়নের ছয়কুট গ্রামের রাসেল মিয়া (৩২) ও প্রতাপী গ্রামের ওয়াহিদ মিয়াকে (৩৭) গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গতকাল সোমবার দুপুরে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া হামলার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। হামলার পর ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

রহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার প্রার্থী ইফতেখার আহমেদ বদরুল বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী জুনেল আহমেদ তরফদার সন্ত্রাসী কায়দায় নৌকার কার্যালয়ে সংসদ সদস্য বসা অবস্থায় অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় সংসদ সদস্যের দেহরক্ষীসহ কয়েকজন আহত হন। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানাই। ’

বিদ্রোহী প্রার্থী জুনেল আহমেদ তরফদার বলেন, ‘সংসদ সদস্যের আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষয়টি আমি বারবার প্রশাসনকে লিখিত ও মৌখিকভাবে অবগত করেছি। মুন্সীবাজারে আমার নির্বাচনী কার্যালয়ে নৌকার অফিস থেকে হামলা করা হয়েছে। ’



সাতদিনের সেরা