kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

৫৬ বছর পর বাংলাদেশে

পরিবর্তন দেখে উচ্ছ্বসিত সুরাত মিরকাসিমভ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরিবর্তন দেখে উচ্ছ্বসিত সুরাত মিরকাসিমভ

সুরাত মিরকাসিমভ

৫৬ বছর আগে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে এসেছিলেন উজবেকিস্তানের কূটনীতিক সুরাত মিরকাসিমভ। বিশ্ব শান্তি সম্মেলন উপলক্ষে গত শুক্রবার ঢাকায় এসে পরিবর্তন দেখে বিস্মিত তিনি। গতকাল শনিবার ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে প্যানেল আলোচনায় বক্তব্য দিতে গিয়ে মিরকাসিমভ তাঁর বিস্ময়ের কথা তুলে ধরেন।

সুরাত মিরকাসিমভ ভারতে উজবেকিস্তানের রাষ্ট্রদূত হিসেবেও কাজ করেছেন।

বিজ্ঞাপন

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় কলকাতায় ছিলেন তিনি। গতকাল তিনি বলেন, ‘৫৬ বছর আগে আমি প্রথমবার এই দেশে এসেছিলাম তেল, গ্যাস কম্পানির অনুবাদক হিসেবে। এই ভূখণ্ডে আমি পাঁচ বছর কাজ করেছি। ঢাকা ও অন্যান্য

এলাকায় অনেক শহর গ্রাম আমি ঘুরেছি। ’

মিরকাসিমভ বলেন, ‘তখন জীবনযাত্রার মান ছিল খুবই নিম্ন। শিক্ষার হারও ছিল কম। আর এখন পুরোপুরি ভিন্ন চিত্র। কথায় আছে, যেখানে শান্তি সেখানেই উন্নতি, সমৃদ্ধি। ’

বঙ্গবন্ধু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই দেশ প্রতিষ্ঠা করেছেন একজন শান্তিপ্রিয় মহান মানুষ। আমি তাঁকে বলি বাংলাদেশি মহাত্মা গান্ধী। তাঁর মেয়ে এখন এই দেশের নেতা। এই দেশ খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। ’ তিনি আরো বলেন, ‘এখানে আসতে পেরে, কিভাবে উন্নতি হচ্ছে দেখতে পেয়ে আমি খুব আনন্দিত। ’

সুরাত মিরকাসিমভ বলেন, ১৯৭১ সালে তিনি কলকাতায় ভাইস কনসাল ছিলেন। বাংলাদেশ থেকে শরণার্থীদের সেখানে আশ্রয় নেওয়ার ঘটনা তিনি নিজ চোখে দেখেছেন। ইন্দিরা গান্ধীর সরকার তখন খাদ্য, ওষুধসহ সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা দিয়েছিল। তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নও এই দেশকে সহায়তা দিয়েছে।

মিরকাসিমভ বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে অনেক লোকের মৃত্যু হয়েছে। কোনো সংকটই শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করা উচিত নয়। শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধান খুঁজতে হবে। ’



সাতদিনের সেরা