kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

দাওয়াই

শীতে হাড়ের জোড়া থাকুক ব্যথামুক্ত

শীতকালে অনেকের ব্যথার সমস্যা বেড়ে যায়। বিশেষ করে যারা আগে থেকেই বাত ব্যথা, যেমন—আর্থ্রাইটিস, রিওমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, অস্টিওআর্থ্রাইটিস ইত্যাদির রোগী, যারা পেশি, লিগামেন্ট, হাড় ও স্নায়ুর সমস্যায় ভুগছে—তাদের ব্যথা তীব্র আকার ধারণ করতে পারে। তবে কিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করলে জটিলতা কমে। এ বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (নিটোর) সহযোগী অধ্যাপক ডা. জি এম জাহাঙ্গীর হোসেন

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শীতে হাড়ের জোড়া থাকুক ব্যথামুক্ত

যা করবেন

♦ শীতকালে সহনীয় গরম জামা কাপড় পরিধান করুন। গরম পোশাক হাড়ের জোড়াকে ভালো রাখে, জটিলতা হওয়া থেকে রক্ষা করে।

♦ যাদের আর্থ্রাইটিসের ব্যথা আছে, তারা চিকিৎসার পাশাপাশি হালকা গরম পানির সেঁক দিন যাকে বলে ময়েস্ট হিট।

♦ বসা, দাঁড়ানো অবস্থায় বেশিক্ষণ থাকবেন না।

বিজ্ঞাপন

বাসার সিঁড়ি ব্যবহার কম করুন, সাবধানে করুন।

♦ হাতে স্টিক, পায়ে কুশনযুক্ত জুতা এবং গোড়ালি, হাঁটু, কোমর, ঘাড়, কাঁধ, কনুই ও কবজিতে সাপোর্ট বা ব্রেচ ব্যবহার করুন।

♦ হালকা ব্যায়াম বা জোড়ার স্বাভাবিক নড়াচড়ায় পেশি, টেনডন ও লিগামেন্ট নমনীয় হয়। ফলে জোড়া ব্যথামুক্ত থাকে। তবে শীতকালে ভারী ব্যায়াম করতে যাবেন না। এতে ব্যথা আরো বেড়ে যেতে পারে বা জটিলতা বাড়তে পারে।

♦ হাঁটুর ওপর চাপ কমাতে দেহের স্বাভাবিক ওজন বজায় রাখুন।

খাবারদাবার

♦ পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম, ভিটামিন-ডি, এ ও সি জাতীয় খাবার ব্যথা নিরাময়ে বেশ সহায়ক। এই সময় খেতে পারেন শীতের সবজি গাজর, শসা, মুলা ইত্যাদি।

♦ তাজা ফলের রস খান। কেননা ফলের রস সেবন জোড়াকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।

♦ সকালে খালি পেটে খেতে পারেন রসুন। এটা প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখাসহ হাড় জোড়ায় রক্তপ্রবাহ স্বাভাবিক রাখে। ফলে ব্যথাও কমে যায়।

 

চিকিৎসা

♦ খুব বেশি ব্যথা হলে ব্যথানাশক জেল বা মলম লাগাতে পারেন। হালকাভাবে জোড়ায় ম্যাসাজ করলেও ব্যথা কমে যায়।  

♦ একান্তই ব্যথা না কমলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। অনেক সময় স্টেরয়েড ও হায়ালুরোনিক এসিড পুশ করলে ভালো উপকার মেলে। তবে এটা প্রয়োগ করতে হবে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের অভিজ্ঞ চিকিৎসকের মাধ্যমে।



সাতদিনের সেরা