kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

দাওয়াই

সকালের ব্যায়াম বেশি উপকারী

২২ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সকালের ব্যায়াম বেশি উপকারী

সুস্থ থাকতে শরীরচর্চা বা ব্যায়াম করার বিকল্প নেই। তাই রোগ না থাকলেও সুস্থতা ধরে রাখতে অনেকেই নিয়মিত শরীরচর্চা করে থাকে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে সপ্তাহে কমপক্ষে পাঁচ দিন ব্যায়াম করা উচিত। কিন্তু অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে, সকাল, দুপুর না বিকেল—শরীরচর্চা করার আদর্শ সময় আসলে কোনটি?

একাধিক গবেষণা বলছে, দিনের যেকোনো সময়ের পরিবর্তে সকালে ব্যায়াম করলে বেশি কাজে দেয়। সকালে ব্যায়াম করলে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, স্ট্রোক এবং কিছু কিছু ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস পায়।

 

সকালে ব্যায়ামের উপকারিতা

• সকালবেলা শরীর কার্বোহাইড্রেটের বদলে ফ্যাট বা চর্বিকে শক্তির উৎস হিসেবে ব্যবহার করে। কেননা বেশির ভাগ কার্বোহাইড্রেট বা গ্লুকোজ রাতের বেলায় শরীরকে সাপোর্ট দিতেই ব্যবহার হয়ে যায়। তাই মেদ বা ফ্যাট কমাতে চাইলে সকালের দিকে ব্যায়াম করা ভালো। যারা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চায়, তাদের উচিত প্রতিদিন সকালে শরীরচর্চা করা।

• সকালের শরীরচর্চায় দেহে এন্ডোরফিন নামের হরমোনের নিঃসরণ ঘটে। এই এন্ডোরফিনগুলো মস্তিষ্কের রিসেপ্টরগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করে একটি ইতিবাচক অনুভূতির সৃষ্টি করে। ফলে দিনভর মন ভালো থাকে, হতাশা থেকে মুক্তি মেলে।

• সকালে টেস্টোস্টেরন হরমোনের মাত্রা বাড়ে। এ সময় ব্যায়াম করলে পেশিগুলো শক্তিশালী হয়।

• সকালে ব্যায়াম করলে রাতে ভালো ঘুম হয়। যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে তারা সকালে ব্যায়াম করতে পারে।

• দেহের শর্করা নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিসের মাত্রা কমায় সকালের ব্যায়াম।

• সকালে জগিং করলে বা দ্রুত হাঁটলে হার্টে বেশি পরিমাণ অক্সিজেন সরবরাহ হয়, এতে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

• সকালের ব্যায়ামে ক্ষুধা বাড়ে, হজম ভালো হয়, খাওয়ার ইচ্ছা তৈরি হয়।

• সকালে হাঁটলে রক্তের লোহিত কণিকা থেকে চর্বি ঝরে, হাঁটার সময় রক্তের ইনসুলিন ও গ্লুকোজ ক্ষয় হয়। ফলে ডায়াবেটিস ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে।

• সকালের স্নিদ্ধ বাতাস থেকে অক্সিজেন হৃিপণ্ডে পৌঁছে রক্ত বিশুদ্ধ করে এবং অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্ত মস্তিষ্কে সরবরাহ করে। ফলে মস্তিষ্ক সচল থাকে, ডিমেনশিয়া প্রতিরোধ করে, স্মরণশক্তি বৃদ্ধি করে, মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায়।

• সকালে হাঁটাহাঁটির ফলে যে ঘাম বের হয় তাতে ত্বকের লোমকূপগুলো খুলে যায় এবং শরীরের দূষিত পদার্থগুলো ঘামের মাধ্যমে দ্রুত বের হয়। ফলে ত্বক উজ্জ্বল ও লাবণ্যময় দেখায়। তারুণ্য ধরে রাখতে সকালের ব্যায়াম বিশেষ উপযোগী।

• দৌড়, জগিং, ফ্রি হ্যান্ড বা জিমে গিয়ে যা-ই হোক না কেন, সকালে ৩০ মিনিটের ব্যায়াম পুরো দিনের ব্যায়ামের চাহিদা মেটায়। সারা দিনের কর্মক্ষমতা বজায় থাকে।

সুতরাং সম্ভব হলে অলসতা দূর করে সকালের সময়টাকেই ব্যায়ামের জন্য উপযোগী করে তুলুন।

 

ওয়েবএমডি ও হেলথ লাইন অবলম্বনে

আতাউর রহমান কাবুল



সাতদিনের সেরা