kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস আজ

বাল্যবিয়ে ঠেকাতে শিক্ষায় বিনিয়োগ বাড়াতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাল্যবিয়ে কমাতে মেয়েদের শিক্ষায় বিনিয়োগ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে নাগরিক সমাজ। আজ শুক্রবার  আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার আয়োজিত আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস উদযাপন জাতীয় কমিটির সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বাংলাদেশে করোনা মহামারির সময় বাল্যবিয়ে বেড়েছে, যার অন্যতম কারণ দেড় বছরের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া অন্য কারণগুলোর মধ্যে অন্যতম প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর কম নজরদারি, প্রবাসী শ্রমিকদের ভালো পাত্র হিসেবে গণ্য করা, পরিবারের আয় কমে যাওয়া, কন্যাসন্তানকে বোঝা মনে করা ইত্যাদি। এর ফলে দেশব্যাপী ঝরে পড়া স্কুলছাত্রীর সংখ্যাও বেড়েছে। এ অবস্থায় দ্রুত সামাজিক ও রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তোলা না গেলে কন্যাশিশুরা অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে কোস্ট ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, গবেষণায় দেখা গেছে মেয়েরা গ্র্যাজুয়েশন পর্যন্ত পড়াশোনা করলে বাল্যবিয়ের আশঙ্কা কমে যায়। বরং কন্যাশিশুদের পড়াশোনায় বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য সবার অগ্রণী ভূমিকা পালন করা উচিত।

ইকুইটিবিডির মোস্তফা কামাল আকন্দ বলেন, দেশের ৬০টির বেশি জেলায় উদযাপন করা হচ্ছে আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস। এ উপলক্ষে সারা দেশে শোভাযাত্রা, সেমিনার, মানববন্ধন, মেলা আয়োজন এবং গ্রামীণ নারীদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য সম্মাননা প্রদানসহ নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন ফেরদৌস আরা রুমী। জাতীয় কমিটির সভাপ্রধান শামীমা আক্তারের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন কমিটির সদস্য তামান্না রহমান, আবু হানিফ, বেলাল হোসেন, লুৎফর রহমান লাবু, মাসুদা ফারুক রত্না, পি এম বিল্লাল, রাশিদা বেগম, শেখ আসাদ, খন্দকার ফারুক আহমেদ, তাহরিমা আফরোজ ও আশরাফুল হাসান তাইমুর।



সাতদিনের সেরা