kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

ভোটে হেরে ৪২ বছরের রাস্তা বন্ধ করে দিলেন প্রার্থী

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানুষের চলাচলের জন্য ৪২ বছর ধরে চালু রয়েছে একটি রাস্তা। আর রাস্তাটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার পরদিনই বন্ধ করে দিলেন এক সদস্য (মেম্বার) পদপ্রার্থী। এতে প্রায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে ২৫টি পরিবারের শতাধিক মানুষ। পরাজিত প্রার্থী বলছেন, ওই ২৫ পরিবারের ভোটাররা গত ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তাঁকে ভোট দেয়নি। তাই তিনি ‘তাঁর জমির’ ওপর দিয়ে যাওয়া রাস্তাটি বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন। এখন তিনি রাস্তাটিতে যা খুশি বানাবেন। ঘটনাটি সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার জলালাবাদ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বৈদ্যপুর গ্রামের। রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া ব্যক্তির নাম মো. আরিজুল ইসলাম। তিনি স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য। মঙ্গলবার সকাল থেকে রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ায় বিপদে পড়েছেন আওয়ামী লীগ নেতারাও। এখন ২৫ পরিবারের সদস্যরা জরুরি প্রয়োজনে বিকল্প রাস্তা তথা জমির আইল দিয়ে চলাচল করছে। ৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মিন্টু জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বৈদ্যপুর গ্রামের আরিজুল ইসলাম সদস্য প্রার্থী ছিলেন। ভোটে হেরে যাওয়ার কারণে তিনি এলাকাবাসীকে উদ্দেশ করে ২০ সেপ্টেম্বর রাত থেকেই গালাগাল শুরু করেন। পরের দিন সকালে তিনি তাঁর বাড়ির পেছনের রাস্তাটি বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে দেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আরিজুল ইসলাম বলেন, ‘আমার রেকর্ডীয় জমির ওপর দিয়ে মানুষের চলাচলের জন্য রাস্তা ছেড়ে দিয়েছিলাম। ভোটের আগে তারা আমাকে ভোট দিতে চেয়েছিল। তারা আমাকে ভোট দেয়নি। তাই ওদের রাস্তা বন্ধ। আমার জমিতে আমি এখন পায়খানাঘর বানাব। এতে কার কী!’



সাতদিনের সেরা