kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

সিংগাইরে শিশু হত্যার ঘটনায় তিনজনের স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাসার সামনে বাইসাইকেল চালাচ্ছিল সাত বছরের শিশু আল আমিন। সেখান থেকে তাকে অপহরণ করে তিন বখাটে কিশোর। শিশুটি কান্নাকাটি করায় তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ পুঁতে রাখে। আর শিশুটির পরনের জামাকাপড় স্বজনদের দেখিয়ে মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনা করে তিনজন। সে অনুযায়ী ওরা মোবাইল ফোনে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মানিকগঞ্জের সিংগাইরে এই শিশু হত্যার ঘটনায় তিন কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, গত ২৮ আগস্ট শিশু আল আমিনকে সিংগাইরের বড়বাকা এলাকার বাড়ি থেকে নিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় গত শুক্রবার পর্যন্ত রাজবাড়ী ও মানিকগঞ্জের বেরুণ্ডি গ্রাম থেকে তিন কিশোরকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলো হৃদয় হোসেন, সাদ্দাম হোসেন ও নাজমুল হোসেন। গতকাল শনিবার ওই তিনজন মানিকগঞ্জের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ঢাকায় পিবিআই সদর দপ্তরে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত সুপার কে এইচ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ২৮ আগস্ট বাসার সামনে সাইকেল চালানোর সময় ওই তিন কিশোর শিশুটিকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনা করে। তারা শিশুটিকে একটি বাঁশঝাড়ে নিয়ে গলা টিপে হত্যা করে। এরপর প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে ডোবায় ডুবিয়ে রাখে লাশ।



সাতদিনের সেরা