kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘সংবাদ প্রচার ও শব্দ প্রয়োগে নীতি লঙ্ঘিত হচ্ছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী সম্প্রতি অভিযান চালিয়ে ঘরে মাদক রাখা, বাড়িতে পার্টি দেওয়া এবং অন্যান্য অভিযোগে চিত্রনায়িকা পরীমনিসহ কয়েকজন নারীকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে নারী ও কন্যা নির্যাতন এবং সামাজিক অনাচার প্রতিরোধ জাতীয় কমিটি।

গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে সংগঠনটি জানায়, অভিনেত্রী ও নারীদের গ্রেপ্তারের পর কিছু গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমনভাবে সংবাদ প্রচার ও শব্দ প্রয়োগ করা হয়, যাতে নারীর আত্মমর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়। এ ধরনের সংবাদ প্রচার নারীর মানবাধিকার লঙ্ঘনের শামিল। এতে অপরাধ প্রমাণের আগে ভিকটিম ব্লেমিং না করার নীতি লঙ্ঘিত হচ্ছে। অভিযুক্ত নারীদের বিরুদ্ধে কোনো অপরাধ-সংশ্লিষ্টতার সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়া গেলে আদালতে তাঁদের বিচার হবে। এ ক্ষেত্রে কারো কিছু বলার নেই। কিন্তু তাঁরা যেন কারো কোনো প্রতিহিংসার শিকার হয়ে হয়রানি না হন। আদালতে অপরাধ প্রমাণের আগে উদ্দেশ্যমূলক প্রচারণা সমীচীন নয়।

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম, ডা. ফওজিয়া মোসলেম, নিজামুল হক নাসিম, মফিদুল হক, রামেন্দু মজুমদার, মামুনুর রশীদ, জেড আই খান পান্না, অ্যাডভোকেট এস এম এ সবুর, সুলতানা কামাল, কাজী রিয়াজুল হক, অজয় দাশগুপ্ত প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা