kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

এবারও বিদেশ থেকে হজে যাওয়া বন্ধ

সৌদি সরকারের সিদ্ধান্ত

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৩ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এবারও বিদেশ থেকে হজে যাওয়া বন্ধ

নভেল করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এ বছরও বাংলাদেশ থেকে কেউ পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যেতে পারবেন না। শুধু বাংলাদেশ নয়, সব দেশের জন্যই এ বছর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত বছরের মতো এবারও শুধু সৌদি আরবে অবস্থানকারী মুসলমানরা শর্তসাপেক্ষে হজ পালনের সুযোগ পাবেন। সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ গতকাল শনিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে ফোনালাপে এ কথা জানিয়েছেন।

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ জানান, এ বছর করোনা মহামারির কারণে অন্য দেশ থেকে কোনো ব্যক্তি সৌদি আরবে গিয়ে হজ পালন করার সুযোগ পাবেন না। তবে সৌদিতে অবস্থানরত সৌদি নাগরিকের পাশাপাশি অন্য দেশের নাগরিকরাও হজ পালনের সুযোগ পাবেন।

এদিকে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খানও গতকাল বলেছেন, সৌদি আরব সরকার জানিয়েছে, করোনা মহামারি পরিস্থিতি বিবেচনায় এ বছরও সৌদি আরবের বাইরের কোনো দেশ থেকে হজযাত্রীরা হজের সুযোগ পাবেন না। সৌদি আরবের নাগরিক এবং সৌদি আরবে অবস্থানকারী অন্যান্য দেশের মুসলিমদের নিয়ে সীমিত আকারে হজ পালিত হবে।

সৌদি প্রেস এজেন্সি বলেছে, এ বছর ৬০ হাজার সৌদি বাসিন্দা পবিত্র হজ পালনের সুযোগ পাবেন।

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বাংলাদেশের শ্রমিকরা এ দেশে কোয়ারেন্টিন শেষে সৌদি আরব গেলে সেখানে কোয়ারেন্টিন থেকে অব্যাহতি দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি গতকাল সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে আলাপকালে এ অনুরোধ জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি শ্রমিকরা সৌদি আরবে যাওয়ার আগে বাংলাদেশেই কোয়ারেন্টিন করলে তাঁদের খরচ সাশ্রয় হবে। সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে আশ্বস্ত করেছেন।

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে যাওয়ার পর সাত দিন বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়। করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশি শ্রমিকের সৌদি আরবে যাওয়ার অনুমতি প্রদানের জন্য সৌদি সরকারকে ধন্যবাদ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ড. মোমেন বলেন, মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে সে দেশে নিরাপদ মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ গুরুত্ব আরোপ করে। এ বিষয়ে তিনি সৌদি আবরের সহযোগিতা কামনা করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী  ওই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেন এবং সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফর করবেন বলে জানান।



সাতদিনের সেরা