kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা আগামী সপ্তাহে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামী শনি অথবা রবিবার বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে। লঘুচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার সম্ভাবনা আছে। পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের সুন্দরবন উপকূলেও আঘাত হানতে পারে।

গতকাল বুধবার রাতে আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আগামী শনি অথবা রবিবার লঘুচাপটি সৃষ্টি হতে পারে। লঘুচাপ সৃষ্টি হলে তা ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। তবে এ ব্যাপারে আরো দু-এক দিন পর বিস্তারিত বলা যাবে।’

এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম তাদের আবহাওয়া বিভাগের সূত্রে বলছে, আগামী রবি থেকে মঙ্গলবারের মধ্যে ‘যশ’ নামের একটি সুপার সাইক্লোন সুন্দরবন উপকূলে আঘাত হানতে পারে। এটি বাংলাদেশের দিকে অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, গত বছরের মে মাসে দেশে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ আঘাত হেনেছিল। তখন উপকূলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। এবার এখন যেহেতু ফের মে মাস চলছে, তাই এই ঘূর্ণিঝড়টিও বড় আকার ধারণ করতে পারে।

গতকালের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলসহ রংপুর, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-একটি জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ সহ বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

তাপপ্রবাহের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, সীতাকুণ্ডু, রাঙামাটি, কুমিল্লা, চাঁদপুর, ফেনী, মাইজদীকোর্ট, রাজশাহী, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ অঞ্চলসহ খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, এটি অব্যাহত থাকতে পারে।

গতকাল সকাল ৬টা পর্যন্ত সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে ৫০ মিলিমিটার। আর ঢাকা ও সিলেটে এই বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৪৫ মিলিমিটার।



সাতদিনের সেরা