kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

সরকারি উদ্যোগে বাধা সিফ্যারার্স ইউনিয়নের

জাহাজ পরিচালনাকারী কম্পানিগুলোতে নাবিক সংকট

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দীর্ঘদিন ধরেই নাবিক সংকটে হিমশিম খাচ্ছে সরকারি-বেসরকারি জাহাজ পরিচালনাকারী কম্পানিগুলো। এতে ব্যাহত হচ্ছে জাহাজ পরিচালনা কার্যক্রম। তাই জাহাজে যোগ্য ও দক্ষ নাবিক (রেটিংস) পেতে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনসহ দেশের বেসরকারি স্বনামধন্য কম্পানিগুলো সরকারি ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে (এনএমআই) ধরনা দিচ্ছে। নাবিক চাহিদা মেটাতে বাড়তি ব্যাচ ভর্তি করে নাবিক প্রশিক্ষণের আহ্বান জানাচ্ছে। তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় জরুরি ভিত্তিতে বাড়তি নাবিক প্রশিক্ষণের অনুমোদন দিয়েছে। কিন্তু তা ঠেকাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ সিফ্যারার্স ইউনিয়নের একটি চক্র। বাড়তি নাবিক চাহিদা তৈরির উদ্যোগ ঠেকাতে এরই মধ্যে নৌ মন্ত্রণালয়, নৌ পরিবহন অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি চালাচালি চলছে।

বাংলাদেশ সিফ্যারার্স ইউনিয়ন হচ্ছে, কর্মরত নাবিকদের সুযোগ-সুবিধা অধিকার আদায়ের সংগঠন। কিন্তু সেই সংগঠনটি এখতিয়ারের বাইরে গিয়ে এখন ক্যাডেট প্রশিক্ষণেও বাধা সৃষ্টি করছে।

সরকারি নিয়ম মেনে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে শিক্ষার্থীরা প্রশিক্ষণের জন্য ভর্তি হন। প্রশিক্ষণ সফলভাবে শেষ করতে পারলেই শুধু তাঁরা চাকরির বাজারে প্রবেশ করেন।

অভিযোগ উঠেছে, সেই শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ-সুযোগবঞ্চিত করার কাজ করছে বাংলাদেশ সিফ্যারার্স ইউনিয়ন। আর এই চক্রের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সভাপতি সৈয়দ মো. আরিফ হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান হোসেন। তাঁরা ইউনিয়নের সুনামকে পুঁজি করে ব্যক্তিগত সুবিধা আদায় করতে না পেরেই ক্যাডেট প্রশিক্ষণ ঠেকানোর কৌশল নিয়েছেন। এর আগে ২০০৯ সালে এই চক্রটি নাবিক (রেটিং) নির্বাচন বন্ধ রাখতে উচ্চ আদালতে রিট করে। কিন্তু আদালত সেটি যাচাই করে খারিজ করে দেন। এখন নতুন কৌশলে তারা আবারও সেটি  ঠেকানোর চেষ্টা করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন ফয়সাল আজিম বলেন, নাবিক সংকট মিটিয়ে জাহাজ চলাচল নির্বিঘ্ন রাখতে যোগ্য ও দক্ষ নাবিক পেতে সরকারি-বেসরকারি বেশকিছু জাহাজ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান আমাদের কাছে চিঠি দিয়ে দ্রুত নাবিক (রেটিং) দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন ৬৪ জন, ব্রোভ রয়েল শিপ ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড ২৭ জন, ভ্যানগার্ড মেরিটাইম লিমিডেট ১২ জনসহ অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

তিনি বলেন, এর আগেও এই ইউনিয়ন নাবিকদের চাকরির সুবিধাবঞ্চিত করতে চেয়েছিল। কিন্তু উচ্চ আদালতে সেটি টেকেনি। শুধু তাদের কারণে গত তিন বছরে অন্তত ৩০০ ক্যাডেট প্রশিক্ষণ পাওয়ার সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। ইউনিয়নের কয়েকজন নেতা সরকারের নাবিক কর্মসংস্থান উদ্যোগ ফের বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

গত রবিবার বাংলাদেশ সিফ্যারার্স ইউনিয়নের পক্ষ থেকে রেটিংস বা নাবিক প্রশিক্ষণ নির্বাচন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিকে বেআইনি এবং উদ্দেশ্যমূলক অভিহিত করে সেটি সাত দিনের মধ্যে প্রত্যাহারের জন্য ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষকে আহ্বান? জানানো হয়। সিফ্যারার্স ইউনিয়নের পক্ষ থেকে এমন চিঠি দেওয়াকে সরকারের নাবিক কর্মসংস্থান উদ্যোগ বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা বলে উল্লেখ করেন সংশ্লিষ্টরা।

এ ব্যাপারে সিফ্যারার্স ইউনিয়নের সভাপতি সৈয়দ মো. আরিফ হোসেন বলেন, ‘আমি আইন মেনেই কাজ করছি। এর বেশি কিছু বলতে পারব না।’ ইউনিয়নের কাজ কর্মীর অধিকার নিশ্চিত করা; কিন্তু শিক্ষার্থীদের নিয়ে তাদের কর্মকাণ্ড এখতিয়ারবহির্ভূত কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘২৬ বছর ধরে এই পেশায় আছি। সুতরাং নতুন করে কিছু শিখতে হবে না। একই সঙ্গে এখন কোন জাহাজে তিনি কর্মরত আছেন জানতে চাইলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। পরে মোবাইল ফোনের সংযোগ কেটে দেন।

উল্লেখ্য সিফ্যারার্স ইউনিয়নের সভাপতি সৈয়দ মো. আরিফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান হোসেন এক যুগেরও বেশি সময় ধরে কোনো জাহাজে কর্মরত নন। শুধু ইউনিয়নের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে প্রভাব বিস্তার করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।