kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

বেদে সেজে ইয়াবা পাচার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বেদেদের মতো সাজপোশাক। পথে পথে বেচতেন চুড়ি, ফিতা, চুল বাঁধার ফিতা, বাতের ব্যথার রিং ইত্যাদি। সতর্কতার অংশ হিসেবে মহাসড়কও এড়িয়ে চলতেন। এ কারণে কক্সবাজার হয়ে ভেঙে ভেঙে ঢাকায় আসতে লেগে যেত পাঁচ থেকে সাত দিন। এভাবেই দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা পাচার করতেন তাঁরা। গত মঙ্গলবার র‌্যাবের হাতে ধরা পড়েছেন এই চক্রের পাঁচ সদস্য। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের মধ্যপাড়া থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

তাঁরা হলেন তারিকুল ইসলাম (২৩), সিনবাদ (২৩), মিম মিয়া (২২), ইমন (১৯) ও মনির (২৮)। তাঁদের কাছে ৭৭ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে। এসব রান্না করার টিনের চুলার ভেতর বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ছিল। এ সময় জব্দ করা হয়েছে ছদ্মবেশ ধারণের সরঞ্জাম, রান্নার হাঁড়ি-পাতিল ও নানা ধরনের ইমিটেশন অলংকার।

র‌্যাব-২ জানায়, গ্রেপ্তার পাঁচজন মাদকপাচারের এই অভিনব কৌশলের আদ্যোপান্ত জানিয়েছেন। তাঁরা স্বীকার করেছেন, পারস্পরিক যোগসাজশে কক্সবাজারের সীমান্ত এলাকায় সমুদ্রপথে আসা ইয়াবা ট্যাবলেট রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিলেন। এ জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিতে কক্সবাজার থেকে গ্রামের রাস্তা ও নদীপথে ঢাকায় আসতেন তাঁরা। সাধারণ মানুষের সন্দেহ দূর করতে পথে অলংকার বেচতেন। চট্টগ্রামের আনোয়ারা থেকে হাটহাজারী, মানিকছড়ি, গুইমারা, রামগড় হয়ে ফেনী আসতেন। সেখান থেকে নোয়াখালীর চৌমুহনী, সোনাইমুড়ী হয়ে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ হয়ে মতলব লঞ্চঘাট। এরপর ইঞ্জিনচালিত নৌকায় মুন্সীগঞ্জ হয়ে বুড়িগঙ্গা নদী দিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করতেন।



সাতদিনের সেরা