kalerkantho

বুধবার । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৮ ডিসেম্বর ২০২১। ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

সালথায় পুলিশ হেফাজতে আসামির মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

৩ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে ফরিদপুরের সালথায় তাণ্ডব চালানোর ঘটনায় করা মামলার এক আসামির। ফরিদপুর পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, এই মৃত্যুর সঙ্গে কোনো ধরনের শারীরিক বা মানসিক নির্যাতনের সম্পর্ক নেই। নিহত আসামির নাম আবুল হোসেন (৪৬)। তিনি সালথা উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের গোপালিয়া গ্রামের ইমামউদ্দিনের ছেলে। গতকাল রবিবার বিকেলে ওই বিশেষ শাখার পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান নিজ কার্যালয়ের সাংবাদিকদের জানান, গত ৫ এপ্রিল সালথা থানায় তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. হান্নান মিয়া ১৬ এপ্রিল সন্দেহভাজন হিসেবে আবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছিলেন। পুলিশ সুপার বলেন, শনিবার ভোর সোয়া ৫টার দিকে কারাগারের টয়লেটে শব্দ হয়। এরপর আবুল টয়লেট থেকে বের হয়ে আসেন। তাঁকে কোনো সমস্যা আছে কি না জিজ্ঞেস করলে তিনি না-সূচক জবাব দেন। এর কিছুক্ষণ পর তিনি আবার টয়লেটে যান। কিন্তু অনেক সময় পরও বের না হলে অন্য আসামিরা গিয়ে দেখেন আবুল বমি করছেন। বিষয়টি কর্মকর্তাদের জানানো হলে তাঁকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ভোর ৬টার দিকে আবুলকে মৃত ঘোষণা করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তোফাজ্জল রেজিস্টারে লেখেন, ‘রোগীকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে। শরীরের কোথাও কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই।’ পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান আরো বলেন, এ ঘটনায় প্রাথমিক কারণ অনুসন্ধানের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. জামাল পাশাকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।



সাতদিনের সেরা