kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

কার্টুনিস্ট কিশোরের জামিন শুনানি ও আদেশ কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কার্টুনিস্ট কিশোরের জামিন শুনানি ও আদেশ কাল

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের যে মামলায় বন্দি থাকাবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু হয়েছে, সেই মামলার আরেক আসামি কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন প্রশ্নে শুনানি ও আদেশ দেওয়া হবে আগামীকাল বুধবার। এদিকে মুশতাক আহমেদ যে মারা গেছেন সে বিষয়ে তাঁর আইনজীবীকে লিখিতভাবে (হলফনামা আকারে) আদালতকে জানাতে বলা হয়েছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল সোমবার এই দিন ধার্য করে আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনকারীপক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পী।

গতকাল শুনানির শুরুতে জামিন আবেদনকারীপক্ষের আইনজীবী আদালতে বলেন, ‘দুজনের জন্য জামিন আবেদন করা হয়েছিল। তাঁদের মধ্যে একজন লেখক মুশতাক আহমেদ বন্দি অবস্থায় গত ২৫ ফেব্রুয়ারি হাই সিকিউরিটি কারাগারে মারা গেছেন। তাই শুধু ১ নম্বর আবেদনকারী আহমেদ কবির কিশোরের আবেদন উপস্থাপন করছি।’

আদালত মুশতাক আহমেদের জামিন আবেদন প্রসঙ্গে বলেন, তাঁর জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করা ঠিক হবে না। তাই আপনাকে (আইনজীবী) এফিডেভিট দিয়ে (হলফনামা আকারে) বলতে হবে মুশতাক আহমেদ মারা গেছেন। এ সময় আইনজীবী বলেন, ‘মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর কারণ নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই।’ এ পর্যায়ে আদালত বলেন, মৃত্যুর কারণ যা-ই হোক, স্বাভাবিক মৃত্যু হোক বা দুর্ঘটনাজনিত হোক, সেটি তো আলাদা বিষয়। যেহেতু উনি নেই, সে কারণে তার আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজের কোনো সুযোগ নেই।

তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, এ কথাটি অবশ্যই এফিডেভিট করে বলতে হবে। তখন সেটি অ্যাবেট (বাতিল) হয়ে যাবে।

এ সময় আদালত বলেন, যেহেতু বাতিল হয়ে যাচ্ছে, তাই এর রেকর্ড থাকা দরকার। এ জন্যই এফিডেভিট করে বলতে হবে। তাই পরশু (বুধবার) আদেশের জন্য রাখছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা