kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

সংক্রমণ বাড়ছে চট্টগ্রামেও

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

২২ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংক্রমণ বাড়ছে চট্টগ্রামেও

চট্টগ্রামে গত সাড়ে তিন মাস করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার ছিল নিম্নমুখী। কিন্তু গত সোমবার থেকে সংক্রমণের হার বাড়তে শুরু করেছে। এর মধ্যে গত শুক্রবার এক হাজার ৪৯৮টি নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১৯৭ জনের দেহে, যা গত চার মাসে এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, শীত মৌসুম শুরুর আগেই চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গেছে। তবে কেউ কেউ বলছে, এটি দ্বিতীয় ঢেউয়ের পূর্বাভাস হতে পারে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি গতকাল শনিবার কালের কণ্ঠকে বলেন, গত জুলাইয়ে চট্টগ্রামে করোনা পজিটিভের হার ছিল ১৬ শতাংশ থেকে কিছু বেশি। এরপর তা কমে ৭-৮ শতাংশে নেমে আসে। কিন্তু গত এক সপ্তাহে পজিটিভের হার ১৭ শতাংশের বেশি। দৈনিক শনাক্ত ১৩ শতাংশ।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর বলেন, নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে করোনা সংক্রমণ বাড়ার দিকে। তবে মৃত্যুহার এখন সর্বনিম্ন পর্যায়ে। নমুনা পরীক্ষা বাড়ার কারণে শনাক্তও বাড়ছে।

চট্টগ্রামে গতকাল পর্যন্ত এক লাখ ৪৮ হাজার ৯৯৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয় ২৩ হাজার ৫৬৪ জনের দেহে। এ নিয়ে শনাক্তের তুলনায় চট্টগ্রামে এখন পজিটিভের হার ১৫.৮২ শতাংশ। করোনায় চট্টগ্রামে মৃত্যুহার ১.৩৩ শতাংশ।

সীতাকুণ্ডে ফৌজদারহাটের সরকারি বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকসিয়াস ডিজিজেসের (বিআইটিআইডি) মাইক্রোবায়োলজি ও করোনা পরীক্ষাগারের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা. শাকিল আহমেদ গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, শনাক্তের হার যেভাবে বাড়ছে, তাতে সামনে সংক্রমণ আরো বেড়ে যেতে পারে। শীতে বেশি হতে পারে। তাই সবাইকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব না মানার কারণে করোনা বাড়ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত শুক্রবার নগরের সরকারি হাসপাতালগুলোতে ১১৩ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে প্রায় ৭০ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের করোনা চিকিৎসাসেবার সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. আব্দুর রব বলেন, করোনা চিকিৎসায় ১০টি আইসিইউসহ ১৫০টি শয্যা রয়েছে। এর মধ্যে গত মাসেও দিনে গড়ে প্রায় ৩০ জন পর্যন্ত করোনা রোগী ভর্তি ছিল। কিন্তু তা বেড়ে এখন ৪৫ থেকে ৫০ জন চিকিৎসাধীন।

এদিকে সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে এক হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৪৫ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে, যার মধ্যে নগরে ১২১ জন এবং জেলায় ২৪ জন। এ সময়ে নগরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা