kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

‘মাহবুবে আলমের মৃত্যু আইনাঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘মাহবুবে আলমের মৃত্যু আইনাঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি’

প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে আইনাঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। তিনি বলেছেন, মাহবুবে আলম ছিলেন স্বাধীনতার সপক্ষ শক্তির বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর।

গতকাল বৃহস্পতিবার বাদ আসর বেইলি রোডের মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্টে অনুষ্ঠিত মাহবুবে আলমের কুলখানিতে এ মন্তব্য করেন প্রধান বিচারপতি। অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি ছাড়াও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বক্তব্য দেন।

এ সময় আপিল বিভাগের বিচারপতি নূরুজ্জামান ও বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরী, বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম, বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিনউদ্দিন, তিন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেলসহ অনেক সরকারি আইন কর্মকর্তাসহ অপরাপর আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে অ্যাটর্নি জেনারেলের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের নম্রতা, ভদ্রতা ছিল সবার জন্য অনুকরণীয়। কখনো তিনি মেজাজ খারাপ করেননি।’

শ ম রেজাউল করিম বলেন, ‘দায়িত্ব পালনে সততা ও নিষ্ঠার কারণেই তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে বিভিন্ন মামলার শুনানিতে তিনি সরকারের স্বার্থকেই রক্ষা করেছেন। এ ব্যাপারে কাউকে ছাড় দিতেন না।’ তিনি বলেন, ‘সংবিধানসংক্রান্ত বিভিন্ন মামলায় মাহবুবে আলমের যুক্তি-তর্ক তাঁকে অমরত্ব দেবে।’

ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সাদামাটা ও ভালোমানুষ ছিলেন। সব সময় হাস্যোজ্জ্বল থাকতেন। মামলা শেষে আদালত থেকে বের হয়ে হাত ধরে সুন্দর করে কথা বলতেন।’

মাহবুবে আলমের কুলখানি আজ

এদিকে মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, অ্যাটর্নি জেনারেল মরহুম মাহবুবে আলমের কুলখানি আজ শুক্রবার মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের হলদিয়া ইউনিয়নের মৌছামান্দ্র গ্রামে তাঁর নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে বাদ জোহর মিলাদ, কোরআনখানি ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। কুলখানিতে তাঁর দীর্ঘদিনের সহকর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধুবান্ধবসহ বিশিষ্টজনরা উপস্থিত থাকবেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা