kalerkantho

সোমবার । ২৯ আষাঢ় ১৪২৭। ১৩ জুলাই ২০২০। ২১ জিলকদ ১৪৪১

এবার সরকারি ত্রাণে থাকছে শিশুখাদ্যও

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশের অসহায় ও দরিদ্র মানুষের মধ্যে ত্রাণ হিসেবে চাল ও নগদ টাকার পাশাপাশি এবার শিশুখাদ্য বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে প্রতি সপ্তাহে দুই দিন দরিদ্র পরিবারের শিশুদের জন্য এ শিশুখাদ্য বিতরণ করা হবে। এ জন্য এরই মধ্যে দুই দফায় প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান কালের কণ্ঠকে জানান, করোনা দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সারা দেশে দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মধ্যে ত্রাণসামগী বিতরণ করা হচ্ছে। এ জন্য নগদ টাকা ও চাল বরাদ্দের পাশাপাশি শিশুখাদ্য বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রতি সপ্তাহের সোম ও বৃহস্পতিবার এসব খাদ্য বিতরণ করা হবে।

একই বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শাহ কামাল বলেন, ত্রাণসামগ্রীতে প্রথমবারের মতো এবার শিশুখাদ্য থাকছে। এ জন্য এরই মধ্যে দুই দফায় প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সব জেলায় দরিদ্রতা ও জনসংখ্যার হার অনুযায়ী বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শিশুখাদ্যের তালিকায় মিল্ক ভিটাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. শাহজাহান স্বাক্ষরিত মন্ত্রণালয়ের ত্রাণ বরাদ্দসংক্রান্ত এক নোটিশে জানা যায়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় তাৎক্ষণিকভাবে মানবিক সহায়তা হিসেবে বিতরণের জন্য দেশের ৬৪টি জেলায় চাল, নগদ টাকা এবং শিশুখাদ্য ক্রয় বাবদ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এর আগে ৬ এপ্রিল আরেক দফা বরাদ্দ দেওয়া হয়। সূত্র মতে, দুই দফায় ৬৫ হাজার ৯৬৭ মেট্রিক টন চাল, ২৫ কোটি ৩১ লাখ ৭২ হাজার নগদ টাকা এবং শিশুখাদ্য কেনা বাবদ তিন কোটি ১৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা