kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

সংক্ষিপ্ত
করোনা ইস্যুতে বিএনপি

ভোট স্থগিত ও আদালতগুলো বন্ধের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) ও চার সংসদীয় আসনের উপনির্বাচন স্থগিতের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে জনসমাগম এড়াতে দেশের আদালতগুলো যত দিন প্রয়োজন বন্ধ রাখার দাবি জানানো হয়েছে। করোনাভাইরাস বিস্তারের প্রেক্ষাপটে আয়োজিত এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ দাবি জানান। রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। মির্জা ফখরুল বলেন, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে ইতিমধ্যে জনগণসহ বিভিন্ন মাধ্যম থেকে আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও চারটি আসনের উপনির্বাচন বন্ধের দাবি উঠেছে। অথচ আজও নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে যে ২১ তারিখের নির্ধারিত নির্বাচনগুলো হবেই এবং ২৯ তারিখের নির্বাচনের ব্যাপারে ২১ তারিখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমরা এটাকে একপেশে সিদ্ধান্ত বলে মনে করি। এ ক্ষেত্রে জনগণের সঙ্গে সম্পর্ক বর্জিত কমিশন অমানবিক আচরণ করছে। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি, সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে জনগণের স্বার্থে, মানুষের বেঁচে থাকার স্বার্থে এই নির্বাচনগুলো আপাতত স্থগিত রাখার।’ বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের আদালতগুলোয় মানুষের ব্যাপক ভিড় হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দেওয়া আসামিদের আসতে হয়। প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ উপস্থিত হয় আদালতগুলোয়। ইতিমধ্যে ৩০ জন বিচারক কোয়ারেন্টিনে চলে গেছেন। সে ক্ষেত্রে এটা পরিষ্কার যে আদালতগুলোয় এই ভাইরাসের সংক্রমণ বেশি হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা