kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

সিরাজগঞ্জে ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার সলঙ্গায় নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে কৌশলে ডেকে নিয়ে (১৫) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে। এ ঘটনায় চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। নীলফামারীতে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সলঙ্গায় ১৪ মার্চের ঘটনায় গত বুধবার রাতে গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার গোয়ালগ্রাম এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল আলীম (২৮), নলুয়াকান্দি গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৩২), আকতার হোসেনের ছেলে ফিরোজ (২০) ও দোবিলা এলাকার আব্দুল কাদের শেখের ছেলে হৃদয় শেখ (২০)। এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে সলঙ্গা থানায় ছয় যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা।

সলঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ন কবির কালের কণ্ঠকে বলেন, বেশ কিছুদিন আগে আব্দুল আলীমের সঙ্গে স্কুলছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ সূত্রে আলীম গত ১৪ মার্চ সন্ধ্যায় বিয়ের কথা বলে তাকে ফোন করে দবিরগঞ্জ বাজার এলাকায় ডেকে নেন। পরে তিনি তাকে একটি বাড়িতে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন।

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের ঘটনায় অভিযুক্ত নূরুল হক বানিয়াচংয়ের দক্ষিণ-পূর্ব ইউনিয়নের দোয়াখানী গ্রামের শামছুল হকের ছেলে। নির্যাতিতা কিশোরী হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এলাকাবাসী জানায়, গত বুধবার দুপুরে নূরুল হক তাঁর বাড়িতে ওই কিশোরীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

নীলফামারী জেলা সদরের চাপড়া সরমজানি ইউনিয়নের যাদুর হাট বেড়াডাঙ্গা গ্রাম থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে গ্রেপ্তারকৃতের নাম মিজানুর রহমান শাহ (৫০)।

[প্রতিবেদনটি তৈরিতে তথ্য দিয়েছেন সিরাজগঞ্জ, বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) ও নীলফামারী প্রতিনিধি]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা