kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

সৈকতে আন্তর্জাতিক উৎসব শুরু কাল

অংশ নিচ্ছেন ১৫ দেশের দুই শতাধিক নৃত্যশিল্পী

নওশাদ জামিল   

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সৈকতে আন্তর্জাতিক উৎসব শুরু কাল

একদিকে আছড়ে পড়বে সাগরের ঢেউ, পাশেই জমবে দেশ-বিদেশের শিল্পীদের নৃত্যের লহরি। সাগরকন্যা কক্সবাজারের সৈকতে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হচ্ছে চার দিনব্যাপী নৃত্য উৎসব। দেশ-বিদেশের পর্যটকদের আকর্ষণ করতে, দেশের নৃত্যধারা বহির্বিশ্বে তুলে ধরতে এবং বিশ্বের নৃত্যধারার সঙ্গে বাংলাদেশের সমৃদ্ধ নৃত্যের মেলবন্ধনের প্রত্যয়ে আয়োজিত হচ্ছে এই আন্তর্জাতিক উৎসব।

‘ওশান ডান্স ফেস্টিভাল’ শিরোনামের এই উৎসবে অংশ নিচ্ছেন ১৫টি দেশের দুই শতাধিক নৃত্যশিল্পী। আগামীকাল শুক্রবার কক্সবাজার সৈকতে প্রথমবারের মতো শুরু হতে যাচ্ছে এই দ্বিবার্ষিক নৃত্য উৎসব। বিশ্বব্যাপী নৃত্যশিল্পীদের সংগঠন দ্য ওয়ার্ল্ড ডান্স অ্যালায়েন্স-এশিয়া প্যাসিফিকের বাংলাদেশ শাখা নৃত্যযোগ এই উৎসবের আয়োজক।

সৈকতের কক্স কার্নিভালে বিকেল ৫টায় উৎসবের উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। তারপর কক্স কার্নিভালে প্রতিদিন বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত থাকবে দেশ-বিদেশের শিল্পীদের নৃত্য পরিবেশনা। উৎসবের চার দিনই সকাল থেকে মারমেইড ইকো রিসোর্ট সংলগ্ন সৈকতে চলবে বিষয়ভিত্তিক বক্তব্য উপস্থাপন, কর্মশালা ও সেমিনার। বিকেল থেকে থাকবে নৃত্য পরিবেশনা। প্রতিদিন বিকেলে পরিবেশনা নিয়ে মঞ্চে আসবেন আন্তর্জাতিকভাবে নির্বাচিত শিল্পীরা। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে চলবে জাতীয়ভাবে নির্বাচিত শিল্পীদের পরিবেশনায় লোকনৃত্য, সমসাময়িক নৃত্য, শাস্ত্রীয় নৃত্য ও নৃত্যনাট্য।

উৎসবে ১৫টি দেশ থেকে যোগ দেবেন দুই শতাধিক নৃত্যশিল্পী, শিক্ষক, গবেষক ও কোরিওগ্রাফার। উৎসবের কিউরেটর ও নৃত্যযোগের সাধারণ সম্পাদক লুবনা মারিয়াম বলেন, ‘এই উৎসব সাংস্কৃতিক-কূটনীতি ও সাংস্কৃতিক-পর্যটনকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস।’

উৎসবের মূল থিম ‘দূরত্বের সেতুবন্ধ’। সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক দূরত্বকে নাচের মাধ্যমে পূরণের ধারণা তুলে ধরা হবে। উদ্বোধনী দিনে বক্তব্য দেবেন ভারতীয় শিল্পী লীলা স্যামসন, ড. ঊর্মিমালা সরকার, লুবনা মারিয়াম প্রমুখ। এ ছাড়া একটি ভিডিও প্রযোজনা পাঠাবেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নৃত্যশিল্পী আকরাম খান।

বিদেশি শিল্পীদের পরিবেশনার মধ্যে থাকছে—তাইওয়ানের নৃত্য প্রযোজনা ‘বাটু উইথ অর্নামেন্ট’, ‘নট অ্যালোন’, ‘ইমপ্রেশনস অব আওয়ার হোম টাউন’, ‘গ্রেটার দ্যান টু লেস দ্যান’, যুক্তরাষ্ট্রের প্রযোজনা ‘ত্রিকোণ কানেকটিভিটি’, ভারতের প্রযোজনা ‘এজেস’, ‘ইনট্রানসিট’, ‘আনশেয়ারড ডিজায়ারড’, ‘টাচ দ্য সাউন্ড’, কোরিয়ার প্রযোজনা ‘স্প্রিং কামিং উইথ আ ওয়ার্ম ব্রিজ’ ও চীনের প্রযোজনা ‘টয়লেট পাম্প’।

দেশের শিল্পীদের পরিবেশনায় থাকবে অমিত চৌধুরী ও সুইটি দাসের ‘রূপান্তর’, জুয়েইরিয়াহ মৌলির ‘অর্ধনারীশ্বর’, শাম্মী আখতারের ‘মাইন’, আনন্দিতা খানের ‘রিফিউজি’, মৌমিতা জয়ার ‘রিলিজিয়ন : আ কজ অব কনফ্লিক্ট ইন কালচার’, আবু নাঈম খানের ‘লালন’, আরিফুল ইসলাম অর্ণবের ‘মানুষ’, তাহনুন আহমেদীর ‘আজান’, মেহরাজ হক তুষারের ‘ট্রাস্ট’, অলকা দাস প্রান্তির ‘কত্থক টু ওড়িশি’, বৃষ্টি ব্যাপারির ‘ফ্রেম অব মাইন্ড’।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা