kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

‘ভাঙছে’ রবের জেএসডি!

আলাদা কনভেনশন ডেকেছেন রতন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছে না। রতন আগামী ২৮ ডিসেম্বর সভাপতির ডাকা কাউন্সিল প্রত্যাখ্যান করে নিজে আলাদা কনভেনশন ডেকেছেন। মূলত রবের একচ্ছত্র আধিপত্যে বিরক্ত হয়েই রতন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

আব্দুল মালেক রতন জানান, আগামী ১১ জানুয়ারি রাজধানীর কোনো একটি মিলনায়তনে কনভেনশনের আয়োজন করা হবে। মূলত সাংগঠনিক ও রাজনৈতিক  উভয় কারণে জেএসডিতে সমস্যা তৈরি হয়েছে।

রতন বলেন, ‘দলের গঠনতন্ত্র না থাকায় কাউন্সিলের কোনো বৈধতা থাকে না। আমরা বলেছিলাম, আগে গঠনতন্ত্র তৈরি হোক, এরপর কাউন্সিল করা যাবে। কিন্তু রব ভাই তা মানলেন না। ফলে আমরা নতুন করে আগে কনভেনশন করব। সেখানে গঠনতন্ত্র, মেনিফেস্টো নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে সব কিছু চূড়ান্ত করে কাউন্সিল করব। আগের গঠনতন্ত্রকে অনুমোদন দিয়েও কাউন্সিল করা যেত। কিন্তু কোনোটিই করতে রাজি নন রব ভাই।’

কেন্দ্রীয় কাউন্সিল-২০১৯ প্রস্তুতি পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সিরাজ মিয়া বলেন, গুটিকয়েক ব্যক্তি দলের কার্যক্রম সম্পর্কে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে, যা অনভিপ্রেত। আশা করছি, অবিলম্বে তারা পত্রিকায় বিবৃতি দিয়ে দলের মূলধারার কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত হবেন। তা না হলে শিগগিরই দলের পক্ষ থেকে তাদের বিরুদ্ধে গঠনতান্ত্রিক বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আবদুর রবের সঙ্গে দ্বিমতের রাজনৈতিক কারণ সম্পর্কে রতন বলেন, ‘রাজনৈতিক কারণগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এই ফ্রন্ট নির্বাচনকেন্দ্রিক ছিল। কিন্তু দেখা গেল, নির্বাচনের পর ফ্রন্ট আরো জোরদার হচ্ছে; আঙুলের রক্ত দিয়ে শপথ লেখা হচ্ছে। আমরা মনে করি, দুটি বড় দলই একটি আপদ ও আরেকটি বিপদ। ঐক্য হতে হবে পরিপূর্ণভাবে এজেন্ডাভিত্তিক; তাহলে সেই ঐক্য থাকবে।’ এদিকে রবের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য মোবাইল ফোনে চেষ্টা করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা