kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

নিহত মুক্তিযোদ্ধা ফারুকের মেয়ের সংবাদ সম্মেলন

স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার অধিকার চাই

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাঙ্গাইলের আওয়ামী লীগ নেতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধু হত্যার সশস্ত্র প্রতিবাদকারী নিহত ফারুক আহমেদের মেয়ে ফারজানা আহমেদ স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার অধিকার দাবি করেছেন। গতকাল শুক্রবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন। এতে তাঁর মা নাহার আহমেদও উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ফারজানা আহমেদ বলেন, ‘২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি আমার পিতা ফারুক আহমেদকে টাঙ্গাইলের প্রভাবশালী খান পরিবারের গুণ্ডারা নির্মমভাবে হত্যা করে। এর পর থেকেই আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমরা একজন সাধারণ নাগরিকের মতো জীবনযাপনের আপ্রাণ চেষ্টা করে আসছি। কিন্তু খান পরিবার আমাদের পিছু ছাড়েনি। সম্প্রতি আমার মা নিয়ম মেনে নতুন বাড়ি তৈরির কাজ শুরু করেন। এর পর থেকেই প্রতিবেশীদের মাধ্যমে খান পরিবার নানা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে। প্রতিবাদ করলে হুমকি দিচ্ছে। খান পরিবারের হুমকির মুখে সাত মাস আমরা বাড়িছাড়া ছিলাম।’ ফারজানা জানান, আশপাশের লোকজন তাঁকে ও তাঁর মাকে প্রতিনিয়ত গালাগাল করছে। তাঁকে অশ্লীল কথা বলে হেয় করা হচ্ছে। তাঁকে মারার উদ্দেশ্যে দা নিয়ে ধাওয়া করা হয়।

ফারজানা আহমেদ বলেন, ‘স্বাধীন দেশে স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার জন্য আমি ও আমার মা সমাজের বিভিন্ন মানুষের কাছে গিয়েছি। কিন্তু কারো সহযোগিতা পাইনি। আশা করছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের পরিবারের দিকে তাঁর সহানুভূতির দৃষ্টি দেবেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা