kalerkantho

সোমবার । ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১১ রবিউস সানি ১৪৪১     

ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসা সুপার গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাগেরহাটের শরণখোলায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে তারই মাদরাসার সুপারকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় দলবদ্ধ ধর্ষণ মামলার আসামি ফারুক হোসেন গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার হয়েছে। পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে শেরপুরের শ্রীবরদী থানায়। সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনের নামে মামলা হয়েছে। বিস্তারিত কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

শরণখোলা : গতকাল দুপুরে বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার কাটাখালী এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাস থেকে মাদরাসা সুপার ইলিয়াস হোসেন জোমাদ্দারকে (৪৮) গ্রেপ্তার করে পিবিআই। ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রায় দুই মাস পর ইলিয়াসকে গ্রেপ্তার করা হলো। তিনি শরণখোলা উপজেলার খোন্তকাটা রশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ি মাদরাসার সুপার। তাঁর বাড়ি উপজেলার পূর্ব রাজাপুর গ্রামে। বাবার নাম আব্দুল গফ্ফার। গত ৮ আগস্ট মাদরাসার মধ্যে ওই নির্যাতনের ঘটনা ঘটে বলে মামলার এজাহারে বলা হয়েছে।

ফুলবাড়িয়া : দলবদ্ধ ধর্ষণ মামলা দায়েরের আড়াই মাস পর বুধবার রাতে আসামি ফারুক হোসেনকে গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে ফুলবাড়িয়া থানায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, হত্যা, ডাকাতি, অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে। ফারুক কৈয়ারচালা নছর দোকান এলাকার আজিজুল হকের ছেলে। গত ৩ আগস্ট উপজেলার একটি গ্রামে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেন ফারুকসহ তিনজন।

শ্রীবরদী : পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে তিন কিশোরের নামে মামলা হয়েছে। গত সোমবার বিকেলে কুরুয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের কাঠের বাগানে ওই ঘটনা ঘটে। 

ধর্মপাশা : সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় বুধবার রাতে ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় উপজেলার কামলাবাজ গ্রামের সমির আলী (৪০) ও তাঁর সহযোগী সেন্টু মিয়ার নামে মামলা হয়েছে। পুলিশ সেন্টুকে গ্রেপ্তার করেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা