kalerkantho

রবিবার । ২০ অক্টোবর ২০১৯। ৪ কাতির্ক ১৪২৬। ২০ সফর ১৪৪১                

বরিশাল শিক্ষা বোর্ড

তদন্তের আগেই শাস্তি পলাতক চার কর্মচারী

কোটি কোটি টাকার মালিক কর্মচারী সংঘের নেতারা

আজিম হোসেন, বরিশাল   

৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এইচএসসি পরীক্ষার ফল জালিয়াতির অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের চার কর্মচারীই পলাতক। অভিযোগ উঠেছে, আটক করার আগেই বরখাস্ত হওয়ায় ওই চারজন পালানোর সুযোগ পেয়েছেন।

এদিকে তদন্ত করতে গিয়ে কমিটির সদস্যরা জানতে পেরেছেন, ফল জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতি করে বোর্ডের কর্মচারী সংঘের অনেক নেতা কোটি কোটি টাকার সম্পদ বানিয়েছেন।

স্থায়ী বরখাস্ত হওয়া দুই কর্মচারী হলেন চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে দায়িত্বে থাকা কর্মচারী নিতাই চন্দ্র ও অফিস সহকারী শংকর দাস। সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে দুই অফিস সহকারী গোবিন্দ চন্দ্র পাল ও মনিরুল ইসলামকে।

তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় উপপরিচালক মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম অপরাধীদের আটক করার পর তাদের বিরুদ্ধে দাপ্তরিক ব্যবস্থা নেওয়া হোক। কিন্তু বোর্ড কর্তৃপক্ষ আগেই দুজনকে সাময়িক বরখাস্ত করে। এতে অপরাধীরা পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায়।’

মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘আমরা তদন্ত করতে গিয়ে দেখেছি, ফলাফল জালিয়াতি দীর্ঘদিন ধরেই চলছে। এতে মোটা অঙ্কের অর্থের লেনদেন হয়। কর্মকর্তাদের দায়িত্বে অবহেলার কারণে এসব ঘটছে। জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছি।’

তদন্ত কমিটির একাধিক সদস্য জানান, ফল জালিয়াতি, পরীক্ষার খাতা ছাপানো, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি নবায়ন, পাঠদান অনুমতি, বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের টেন্ডার এবং পুকুর দখলসহ নানাভাবে অনেক কর্মচারী কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। এ তালিকায় ওপরের দিকে আছেন বোর্ড কর্মচারী সংঘের নেতারা।

তদন্তে দেখা গেছে, বরিশাল শিক্ষা বোর্ড কর্মচারী সংঘের সভাপতি আবু জাফর প্রায় ৫০ কোটি টাকার মালিক। নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ডের সার্কুলার রোড এলাকায় কোটি টাকা দিয়ে জমি কিনে বহুতল ভবন করেছেন তিনি। সার্কুলার রোডের মানু মিয়া লেনে আরেকটি জমি রয়েছে তাঁর। সেখানেও বহুতল ভবন বানিয়েছেন তিনি। গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর বদরপুরে কিনেছেন পাঁচ একর জমি। সেখানে গড়ে তুলেছেন বদরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এর বাইরে কয়েক একর জমির ওপর মাছের ঘের রয়েছে তাঁর। আছে বিলাসবহুল বাড়িও।

শিক্ষা বোর্ড কর্মচারী সংঘের সম্পাদক নাসির উদ্দিনও শতকোটি টাকার মালিক। নগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচতলা বিলাসবহুল বাড়ি রয়েছে তাঁর। নগরীর টিয়াখালী ও শায়েস্তাবাদ এলাকায় রয়েছে কয়েক একর জমি।

বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুহাম্মদ ইউনুস বলেন, ‘কর্মচারীদের সম্পদের বিষয়টি আমার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে না।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা