kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

বিমরাডের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সেমিনার

দেশের সমৃদ্ধি অর্জনে সমুদ্র সম্পদ কাজে লাগানোর বিকল্প নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের মেরিটাইম খাতে গবেষণাভিত্তিক অন্যতম প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব মেরিটাইম রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (বিমরাড) প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শনিবার নৌসদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত হলো সমুদ্র নিরাপত্তা ও ব্লু-ইকোনমি বিষয়ক এক সেমিনার। এতে প্রধান ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারতের নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল কর্মবীর সিং।

আইএসপিআর জানায়, অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের সমুদ্র নিরাপত্তা ও সমুদ্রসংক্রান্ত বিষয়ে করণীয় সম্পর্কে কি-নোট উপস্থাপন করা হয়। সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. রাশেদ উজ জামান এবং রিয়ার অ্যাডমিরাল এ এস এম এ আওয়াল (অব.)।

নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘সমুদ্র সম্পদের গুরুত্ব উপলব্ধি করেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালে সর্বপ্রথম সমুদ্র অঞ্চলের সীমা নির্ধারণ, সমুদ্র সীমানায় বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা এবং সমুদ্র সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরণের জন্য দ্য টেরিটরিয়াল ওয়াটার্স অ্যান্ড মেরিটাইম জোন অ্যাক্ট-১৯৭৪ প্রণয়ন করেছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বঙ্গোপসাগরের ১,১৮,৮১৩ বর্গকিলোমিটার এলাকায় বাংলাদেশের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘এই সমুদ্র মৎস্য ও খনিজসহ বিভিন্ন সম্পদে পরিপূর্ণ। দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে এই সম্পদকে কাজে লাগানোর কোনো বিকল্প নেই।’

সেমিনারে বিমরাডের চেয়ারম্যান, সাবেক নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ দেশে-বিদেশের মেরিটাইম কমিউনিট, সংশ্লিষ্ট সব সংস্থা, গবেষক ও বুদ্ধিজীবীদের সহযোগিতায় কেন্দ্রীয় থিংক ট্যাংক হিসেবে বিমরাড কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পরে বিমরাড প্রকাশিত জার্নালের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন নৌবাহিনীর সাবেক প্রধান, সশস্ত্র বাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা, ঢাকাস্থ বিদেশি দূতাবাসের কূটনীতিক, বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার নীতি নির্ধারক, গবেষক ও শিক্ষাবিদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী এবং সরকারি-বেসরকারি সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা