kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭। ১১ আগস্ট ২০২০ । ২০ জিলহজ ১৪৪১

আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ

চেয়ারম্যানের নামে মামলা

জয়পুরহাট প্রতিনিধি   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জয়পুরহাটে গৃহবধূ নার্গিস আক্তারকে আত্মহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গতকাল রবিবার জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন নার্গিসের মা। গতকালই ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ বি এম মাহমুদুল হক মামলাটি তদন্ত করে ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) বগুড়াকে।

মামলার আসামিরা হলেন জয়পুরহাট সদর উপজেলার মোহাম্মদাবাদ ইউপির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ও তাঁর সহযোগী মিজানুর রহমান। নার্গিস আক্তার একই ইউনিয়নের চকমোহন গ্রামের নাহার বেগমের মেয়ে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, চকমোহন গ্রামের আদিবাসী যুবক অজিত পাহানের সঙ্গে নার্গিস আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক হয়। অজিত এফিডেভিটের মাধ্যমে মুসলমান হয়ে ইসলামী বিধান মতে গত ২৯ জুলাই নার্গিসকে বিয়ে করে নাহার বেগমের বাড়িতেই বাস করছিলেন। খবর পেয়ে মোহাম্মদাবাদ ইউপির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান গত ১ আগস্ট পরিষদে সালিস ডাকেন। সালিসে আদিবাসী ছেলেকে বিয়ে করায় নার্গিসকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটান আতাউর ও তাঁর সহযোগী মিজানুর রহমান। এতে নার্গিসের ডান হাত ভেঙে যায়। পরে তাঁরা এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিয়ে ‘সমাজে মুখ দেখানো উচিত নয়’সহ নানা ধরনের অপমানজনক কথা বলেন নার্গিসকে। পরদিন সকালে পুরানাপৈল তাজপুরে রেললাইনের ওপর থেকে নার্গিসের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা