kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

সহস্রাধিক গাড়ির জট গোয়ালন্দের মহাসড়কে

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া, পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোত, যানবাহন ও গরুবাহী ট্রাকের বাড়তি চাপ, বৃষ্টিতে ফেরিতে গাড়ি ওঠানামায় বেশি সময় লাগার কারণে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে গাড়ির জট দেখা দিয়েছে। এতে করে ভোগান্তিতে পড়ছে সাধারণ যাত্রী, চালক ও সংশ্লিষ্টরা। দুর্ভোগ পোহাচ্ছে পশুবাহী ট্রাকের চালক ও ব্যাপারীরাও। দীর্ঘ সময় বৃষ্টিতে ভিজে অসুস্থ হয়ে পড়ছে কোরবানির অনেক পশু।

ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের বাড়তি চাপের কারণে বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দিনভর মহাসড়কে অসংখ্য যানবাহন আটকে থাকতে দেখা যায়। সন্ধ্যা ৬টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত যানবাহনের সারি দৌলতদিয়া ফেরিঘাট থেকে গোয়ালন্দ রেলগেট পর্যন্ত ছয় কিলোমিটারজুড়ে বিস্তৃত ছিল। এর মধ্যে কোথাও কোথাও দু-তিন লাইনেও যানবাহন আটকা পড়ে স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হয়। ঘাটের ওপর চাপ কমাতে পুলিশকে মহাসড়কে আটকে থাকা কয়েক শ অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানকে যমুনা সেতু দিয়ে পার হয়ে যাওয়ার জন্য ফেরত পাঠাতে দেখা যায়। এ ছাড়া যাত্রীবাহী বাস, গরুবাহী ট্রাক ও জরুরি যানবাহন ছাড়া অন্য যানবাহনগুলোকে ঘাটে নতুন করে ঢুকতে না দিয়ে গোয়ালন্দ মোড় থেকে ঘুরিয়ে যমুনা সেতুর লাইনে পাঠানো হচ্ছে।

রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমরা যাত্রী ও কোরবানির পশুগুলোকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে নদী পার করছি। ঈদের বাড়তি যানবাহনের কারণে মহাসড়কে দীর্ঘ লাইনের সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় ঘাটের ওপর চাপ কমাতে আগে থেকেই ঘাটে আটকে থাকা অপচনশীল পণ্যবাহী যানবাহনগুলোকে যমুনা সেতু দিয়ে ঘুরিয়ে দিচ্ছি। নতুন করে এ জাতীয় কোনো যানবাহনকে আর ঘাটে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। বিপুলসংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি ঘাটে নিয়োজিত আছেন বেশ কয়েকটি ভ্রাম্যমাণ আদালত।’

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মো. রবিউল ইসলাম জানান, যানবাহন থেকে কেউ যেন অতিরিক্ত টাকা আদায় করতে না পারে সে জন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ফেরির টিকিটের মূল্যতালিকা টাঙানো হয়েছে। এ ছাড়া এ ব্যাপারে পরিবহনসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সচেতন করতে এবারই প্রথম মাইকিং করা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা