kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

ছাত্রদলের চলমান সংকটের সমাধান

চলতি সপ্তাহেই প্রত্যাহার হচ্ছে ১৫ নেতার বহিষ্কারাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে ছাত্রদলের সংকটের সমাধান হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই প্রত্যাহার করা হচ্ছে ১২ নেতার বহিষ্কারাদেশ। ক্ষুব্ধ নেতাদের যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলে যথাযথ মূল্যায়ন করা হবে। পাশাপাশি ছাত্রদলের কাউন্সিল ঘিরে নির্বাচন পরিচালনা, বাছাই ও আপিল কমিটিতে ক্ষুব্ধ নেতাদের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এ ছাড়া ঈদুল আজহার পর নতুন করে ছাত্রদলের কাউন্সিলের দিন নির্ধারণ করা হবে। এই কাউন্সিল হওয়ার কথা ছিল গত ১৫ জুলাই।

গতকাল সোমবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা বৈঠকের পর এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে স্কাইপে যোগ দেন।

ছাত্রদলের সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব দেওয়া হয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যা মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে। মূলত তাঁরাই দফায় দফায় ক্ষুব্ধ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে সংকট সমাধানের নেপথ্য কাজ করেন।

জানতে চাইলে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সন্তান ভুল করলে তাৎক্ষণিক শাসনও বাবা করেন, পরোক্ষণে ক্ষমাও বাবা করেন। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে আলোচনা করে ছাত্রদলের সমস্যা সমাধান করা হয়েছে।

বৈঠকে যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকুসহ ক্ষুব্ধ নেতাদের মধ্যে ইখতিয়ার রহমান কবির, মামুন বিল্লাহ, জহিরউদ্দিন তুহিন, জয়দেব জয়, বায়েজিদ আরেফিন, দবিরউদ্দিন তুষার, আজিজ পাটোয়ারী প্রমুখ ছাত্রনেতা উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা