kalerkantho

ফেসবুকে গুজব

বগুড়ায় গ্রেপ্তার কলেজ শিক্ষক ও আইটি বিশেষজ্ঞ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রধানমন্ত্রী, কয়েকজন মন্ত্রী ও পদ্মা সেতু নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে বগুড়া পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট। তাঁদের একজন শহরের ঝোপগাড়ী এলাকার বাসিন্দা এবং সোনাতলা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক মাসুদুর রহমান টিটু (৪৮)।

আরেকজন আদামদীঘি উপজেলার পশ্চিম ছাতনী গ্রামের বাসিন্দা এবং আইটি বিশেষজ্ঞ বেনজুর আহম্মেদ (২৮)।

বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূইয়া জানান, তাঁদের সাইবার মনিটরিং সেল জানতে পারে যে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও একটি ফেসবুক পেজ থেকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

এর মধ্যে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে গুজব ছড়ানো হয় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, কয়েকজন মন্ত্রী ও ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার বিরুদ্ধে। আর ফেসবুক পেজে গুজব ছড়ানো হয় পদ্মা সেতু নিয়ে।

সাইবার মনিটরিং সেলের তদন্তে আরো উঠে আসে, ওই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের উসকানিমূলক ছবি ও মন্তব্য পোস্ট করা হয়। শেয়ার করা হয় পুলিশকে গালাগাল করা নানা ধরনের ছবি ও ভিডিও। যেসব পেজ বেশি শেয়ার হয়েছে, সেগুলোর মধ্যে ‘হাসিনার পতন চাই’ ও ‘বাঁশের কেল্লা’ অন্যতম। গতকাল সোমবার সকালে নিজ নিজ বাড়ি থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বগুড়া সদর থানায় মামলা হয় তাঁদের নামে।

বগুড়া সাইবার ক্রাইমের পরিদর্শক এমরান মাহমুদ তুহিন জানান, ফেসবুক অ্যাকাউন্ট চালান মাসুদুর রহমান টিটু। আর পেজটি চালান আইটি বিশেষজ্ঞ বেনজুর আহম্মেদ। দুজনই জিজ্ঞাসাবাদে গুজব ছড়ানোর বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

মন্তব্য