kalerkantho

শনিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৭। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১ সফর ১৪৪২

স্ত্রীকে না পেয়ে ছয় বছরের শিশুকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল    

১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর পৌর শহরের মাসকান্দি এলাকায় হাতুড়ি দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে নিলয় (৬) নামের এক শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। গত সোমবার প্রতিবেশী হাবিব মিয়া ওরফে হবির হাতুড়ি পেটার শিকার শিশুটি ওই দিন রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় মারা যায়। অন্যদিকে, গত দুই দিনেও পুলিশ অভিযুক্ত হবিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে তাঁর স্ত্রী পুতুল বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নিহত শিশু নিলয় মাসকান্দির দরিদ্র কৃষক আনোয়ারুল ইসলামের ছেলে। গত মঙ্গলবার ময়নাতদন্ত শেষে নিলয়ের মৃতদেহ গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়।

পুলিশ, নিহতের পরিবার ও প্রতিবেশীরা জানায়, স্ত্রীর সঙ্গে হবির বেশ কিছুদিন ধরেই ঝগড়া-বিবাদ হচ্ছিল। সোমবার হবি স্ত্রী পুতুলকে প্রহারের জন্য হাতুড়ি নিয়ে তেড়ে যায়। এ সময় পুতুল ঘর থেকে পালিয়ে পাশের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন। হবিও হাতুড়ি নিয়ে পুতুলের পিছু ধাওয়া করে। ওই সময় শিশু নিলয় পথের ধারে খেলা করছিল। স্ত্রীকে মারতে না পেরে হবি অবুঝ শিশুটিকে সামনে পেয়ে তাকেই হাতুড়ি দিয়ে মারতে থাকে। শিশুটির আর্তনাদে লোকজন এগিয়ে এলে হবি দৌড়ে পালিয়ে যায়।

মাথা, মেরুদণ্ডসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর আহত নিলয়কে চিকিৎসা দিতে প্রথমে কিশোরগঞ্জ জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এরপর সেখান থেকে নিলয়কে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে সোমবার রাতে মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে নিলয় মারা যায়। এ ঘটনায় নিলয়ের বাবা আনোয়ারুল ইসলাম বাদী হয়ে হাবিব মিয়া ওরফে হবি ও তাঁর স্ত্রী পুতুল আক্তারকে আসামি করে কুলিয়ারচর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এমন নির্মম উপায়ে শিশুপুত্র হারিয়ে মা শামীমা আক্তার ও বাবা আনোয়ারুল পাগলপ্রায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা