kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

বজ্রপাতে দিনাজপুর ও ঠাকুরগাঁওয়ে পাঁচজনের মৃত্যু

ঠাকুরগাঁও ও দিনাজপুর প্রতিনিধি   

২৪ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঠাকুরগাঁওয়ে গতকাল দুপুরে বজ্রপাতে এক শিশু ও দুই আম ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তাঁদের তিনজনেরই বাড়ি রানীশংকৈল উপজেলায়। তবে আম ব্যবসায়ীদের মৃত্যু হয়েছে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়। একই দিন বিকেলে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর ও বিরলে বজ্রপাতে নারীসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ সময় মারা গেছে দুটি গরু।

গতকাল দুপুরে রানীশংকৈল উপজেলার আলশিয়া গ্রামের শহীদ আলী (১৩) বাড়ির পাশের মাঠে খেলা করছিল। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাতে সে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে একই উপজেলার মুজাহিদাবাদ জগদল গ্রামের আম ব্যবসায়ী নূরেল ইসলাম (৪৩) ও রবিউল ইসলাম (৩৯) বজ্রপাতে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় নিহত হয়েছেন। বালিয়াডাঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা বলেন, নূরেল ও রবিউল বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সরকার বস্তি গ্রামে আম পাড়ছিলেন। এ সময় বৃষ্টিসহ ঝোড়ো হাওয়া শুরু হলে তাঁরা বাগানের টিনসেড ছাউনির নিচে আশ্রয় নেন। এরপর হঠাৎ বজ্রপাত হলে তাঁরা গুরুতর আহত হন। পরে তাঁদের বালিয়াডাঙ্গী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে ও বিরলে বজ্রপাতে দুজন নিহত হয়েছেন। এ সময় দুটি গরুও মারা গেছে। নিহতরা হলেন, চিরিরবন্দর উপজেলার মহাদানীপুর গ্রামের হিরা বালা (৩০) ও বিরল উপজেলার মাধববাটী গ্রামের মোজাহার আলী (৩৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকেলে ধান ক্ষেত থেকে গরু নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান হিরা বালা। এ সময় তাঁর দুটি গরুও মারা যায়। এ ছাড়া সন্ধ্যায় বিরল উপজেলার মাধববাটি গ্রামে ধানের চারা তোলার সময় বজ পাতে মোজাহার আলী মারা যান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা