kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সরকারের ইট স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বাড়িতে!

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ার ধুনট উপজেলার ভাণ্ডারবাড়ী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন সরকারি সড়কের ইট ‘আত্মসাৎ’ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ অনুযায়ী, গত রবিবার সন্ধ্যায় রঘুনাথপুরে যমুনা নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের সংযোগ সড়কের প্রায় সাড়ে তিন হাজার ইট ওই নেতা তাঁর বাড়িতে নিয়ে যান।

তবে মোয়াজ্জেম হোসেন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, কিছু লোক ইট চুরি করার সময় সেগুলো তিনি উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে সংরক্ষণ করেছেন।

রঘুনাথপুর মাদরাসাসংলগ্ন সড়ক থেকে যমুনা নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ পর্যন্ত প্রায় ১০০ মিটার দৈর্ঘ্যের সংযোগ সড়কটি ইট দিয়ে সোলিং করে নির্মাণ করা হয়। এডিপির অর্থায়নে সড়কটি নির্মাণ করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। ব্যয় হয় প্রায় দেড় লাখ টাকা। মাস তিনেক আগে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ সংস্কারের সময় ওই সংযোগ সড়কের একটি অংশ থেকে প্রায় সাড়ে তিন হাজার ইট তুলে বাঁধের পাশে স্তূপ করে রাখে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। অভিযোগ উঠেছে, ওই ইট গত রবিবার সন্ধ্যায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোয়াজ্জেম নিজ বাড়িতে নিয়ে যান।

মোয়াজ্জেম হোসেন দাবি করেন, ‘বাঁধের পাশে তুলে রাখা ইটগুলো রাতের বেলা স্থানীয় লোকজন চুরি করে নিয়ে যাচ্ছিল। তাই সেখান থেকে ইটগুলো বাড়িতে এনে সংরক্ষণ করা হয়েছে। সড়কের প্রয়োজন হলে ইটগুলো ফেরত দেওয়া হবে।’ উপজেলার ভাণ্ডারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল করিম আপেল বলেন, ‘মোয়াজ্জেম হোসেন ইটগুলো বাড়ি নিয়ে গেছে। তবে কী উদ্দেশ্যে নিয়েছে, তা আমার জানা নেই। বিষয়টি উপজেলা প্রকৌশলীকে জানানো হয়েছে।’ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ধুনট উপজেলা প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘এ ব্যাপারে তদন্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিয়া সুলতানা বলেন, ‘বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি। তারপরও খোঁজ নিয়ে দেখব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা