kalerkantho

বাজেট হবে জনসম্পৃক্ত সহজবোধ্য : অর্থমন্ত্রী

‘প্রতি পরিবারের একজনের চাকরির ব্যবস্থা করা হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতি পরিবারের অন্তত একজনকে চাকরি দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, এ কাজটি আগামী বাজেট থেকেই বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নে মতবিনিময়ের জন্য দেশের বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। গতকাল রবিবার রাতে রাজধানীর রমনায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকালের প্রথম প্রাক-বাজেট আলোচনায় ব্রিফিংয়ে তাঁর সঙ্গে ছিলেন অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, ব্যাংকিং সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূইয়া এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির।

আগামী বাজেটে কোন কোন বিষয় প্রাধ্যান্য দেওয়া হবে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এবারের বাজেটে উন্নয়ন, প্রবৃদ্ধি, উৎপাদন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি প্রাধান্য পাবে। সেই সঙ্গে দারিদ্র্য বিমোচনকে সমানভাবে গুরুত্ব দেওয়া হবে। বাজেটের আকার এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে আমরা সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীকে সুশৃঙ্খলভাবে ব্যবহার করব। জনগের আয় যাতে বাড়ে সে ব্যবস্থা করব। প্রতিটি পরিবারে যাতে একটি মানুষের চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে পারি সেই কাজ আমরা করব।’

তিনি আরো বলেন, বাজেট হবে জনবান্ধব। জনগণ যেন বুঝতে পারে, জনগণকে সম্পৃক্ত করা যায় তেমন বাজেটই দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করা হবে।

বাজেটে নতুনত্ব কী থাকবে জানতে চাইলে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘বাজেট ডকুমেন্টের আকার কমলেও টাকার অঙ্ক কমবে না। বাজেটের মাধ্যমে আমরা যে সার্ভিস ডেলিভারি করব সেখানেও কমতি থাকবে না। আমরা সুন্দর ও সহজ ভাষা দিয়ে কম কথায় অনেক বেশি বলার চেষ্টা করব। এই বাজেটটি যাতে জনগণের কাছে বোধগম্য হয় সে জন্য বাজেট বক্তৃতা থেকে শুরু করে সব কিছু ছোট আকারের হবে। যাদের জন্য বাজেট তারা যদি নাই বুঝল তাহলে এই বাজেটের মূল্য কি থাকল?’

মন্তব্য