kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

খাদেম খুন ইটের আঘাতে!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

নাটোরের লালপুরে গোপালপুর পৌর এলাকায় জামিরুল রহমান নামে এক ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে বাড়ির পাশে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। একই কায়দায় এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন পাবনার আতাইকুলায়। আর মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে মসজিদের এক খাদেমকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে খুলনায়। প্রাথমিকভাবে তিনটি ঘটনাকেই পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবে দেখছে পুলিশ প্রশাসন। প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের খবরে বিস্তারিত—

নাটোর প্রতিনিধি জানান, লালপুর উপজেলার গোপালপুর পৌর এলাকার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন জামিরুল রহমান। গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে পৌরসভার বিরোপাড়া মহল্লায় তিনি নিজের বাড়ির পাশে হামলার শিকার হন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত ২৮ নভেম্বর খুন হন লালপুর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহারুল ইসলাম। ওই ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে গতকাল উপজেলা পরিষদের সামনে একটি মানববন্ধন হয়। এর কিছুক্ষণ পর কাউন্সিলর জামিলুর রহমান উপজেলা পরিষদ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁর ওপর হামলা চালায়। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পাবনা প্রতিনিধি জানান, জেলার আতাইকুলায় দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন হাফিজুর রহমান (৩২)। তিনি আটঘরিয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। গত শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে পুলিশ গতকাল রবিউল ইসলাম রবি নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। রবি আটঘরিয়া থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক।

খুলনা অফিস জানায়, নগরীতে মাসুদ গাজী (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে ইট দিয়ে আঘাত করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার রাত দেড়টার দিকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু হয় মাসুদ গাজীর। তিনি মিস্ত্রিপাড়া বাজার মসজিদের খাদেম ছিলেন। রং মিস্ত্রি ও বিদ্যুতের কাজও করতেন। তাঁর বাড়ি মহানগরীর পূর্ববানিয়া খামার লোহারগেটের নবম গলিতে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা